বিকাল ৪:১১ | রবিবার | ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে নিহত ১১

রাঙামাটি : রাঙামাটি জেলার নানিয়ারচরে পাহাড় ধসে ১১জন নিহত হয়েছে। ১২ জুন মঙ্গলবার ভোরে নানিয়ারচর উপজেলার পৃথক ৫টি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।গ্রামগুলো হলো-নানিয়ারচর উপজেলার বুড়ীঘাট, ধরমপাশা, আমতলী, বড়পুল ও ছড়াইপাড়া গ্রাম।
রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তাপশ শীল এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তবে তাৎক্ষণিক নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। প্রশাসনের একটি দল উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া টানা বর্ষণে নানিয়ারচর উপজেলার ইসলামপুরে-৪৫টি, বগাছড়িতে-৪২ ও বুড়িঘাটে-একটি স্থানে পাহাড় ধস হয়েছে। এসব এলাকায় মানুষের বাড়ি-ঘরের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মানুষদের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২১টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। পাহাড় ঘেষে বসবাসরত মানুষদের মাকিং করে নিরাপদ স্থানে সড়ে যেতে বলা হচ্ছে। টান বর্ষণে পাহাড় ধসের আতঙ্কে ঘর ছাড়তে শুরু করেছে মানুষ।
নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা জানান, রাতে ভারি বৃষ্টিতে পাহাড় ভেঙ্গে মাটিচাপা পড়ে বুড়িঘাট ইউনিয়নে ছয়জন ও নানিয়ারচর ইউনিয়নে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে উপজেলার ৩নং বুড়িঘাট ইউনিয়নের ধরমপাশা কার্বারি পাড়ার স্মৃতি চাকমা (২৩) ও তার ছেলে আয়ুব দেওয়ান। এছাড়া বাকিদের নাম পরিচয় জানতে পারিনি।
জানা গেছে, গত ৪দিনের টানা বর্ষণে তছনছ হয়ে গেছে রাঙামাটি। পাহাড় ধসে বিধ্বস্ত হয়ে গেছে অসংখ্য বাড়িঘর। ধসে পড়ছে পিলার, বাড়ি-ঘরের প্লাস্টার ও সীমানা পাচির। সড়কে সড়েকে জমেছে মাটির স্তুপ। উপছে পড়েছে গাছ পালা। বৃষ্টির পানি পড়ার কারণে বৈদ্যতিক খুঁটিগুলো থেকে ছিড়ে পড়ছে আগুন। রাত থেকে দিনে অর্ধেক সময় বিদ্যুৎ বিহীন ছিল রাঙামাটি। এছাড়া শহরের রাঙামাটি চেম্বার অব কর্মাস ভবনের পাশ্ববর্তী সড়ক, সিনিয়র মাদ্রাসার পাশ্ববর্তী দেয়াল ও চম্পকনগর এলাকায় পরিবার পরিকল্পনা অফিসের দেয়াল, টিটিসি, বিজিবি রোড, ডিয়ার পার্ক, ঘাগড়া, সাপছড়ি, রাঙাপানি, পুলিশ লাইন ধসের ঘটনা ঘটেছে।
রাঙামাটি সড়ক জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. এমদাদ হোসেন জানান, গত চারদিনের টানা বর্ষণে রাঙামাটি জেলায় প্রায় ১২৮টি স্থানে পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে। পাঁচটিরও অধিক স্থানে সড়ক ভেঙ্গে গেছে। সড়কের কংক্রিট উঠে বড় বড় খানাখন্দ আর গর্তে পরিণত হয়েছে। এতে যানবাহন চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। পাহাড় থেকে মাটির নেমে সড়কে স্তুপে পরিণত হয়েছে।
রাঙামাটি  জেলা সিভিল সার্জন ড. শহীদ তালুকদার জানান, নানিয়ারচর উপজেলায় পাহাড় ধসের ১১জনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। কয়েকজনকে উপজেলা স্থাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়েছে। এখনো উদ্ধার তৎপরতা চলছে।
প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে এই দিনে রাঙামাটি পাহাড় ধসে ১২০জন মানুষ প্রাণ হারায়। আহত হয় অর্ধশতাধিক। এছাড়া সেসময় ১৪৫টি স্থানে পাহাড় ধসে সারা দেশের সাথে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় রাঙামাটি।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শ্রীবরদীতে নির্যাতনে শিশু গৃহকর্মীর মৃত্যু ॥ গৃহকর্তাকে গ্রেফতারসহ দম্পতির ফাঁসি চান স্বজনরা

» ঝিনাইগাতীতে খেলার মাঠ দখল করে চাষাবাদ : ক্রীড়া কর্মকাণ্ড ব্যাহত

» চুলের জন্য সিনেমা থেকে বাদ পড়লেন বাপ্পী

» নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্ট কোম্পানিতে ৩৬৮ জনের নিয়োগ

» সমালোচনা নিত্যসঙ্গী মাহমুদউল্লাহর

» বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ২ ম্যাচের জন্য ব্রাজিল দল ঘোষণা

» ‘খালেদা জিয়ার দণ্ড স্থগিত শেখ হাসিনার মানবিকতায়, বিএনপির আন্দোলনে নয়’

» করোনা: মোবাইল ফোন জীবাণুমুক্ত রাখতে কী করবেন

» স্পিডবোট ডুবিতে নিখোঁজ ৫ জনেরই লাশ উদ্ধার

» ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর নেই

» শেরপুরে ডা. অমি’র জন্মদিন উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও খাবার বিতরণ

» শেখ হাসিনা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করেছেন : কৃষিমন্ত্রী

» শ্রীবরদীতে গৃহকর্ত্রীর নির্যাতন ॥ ২৭ দিন পর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লো সেই শিশু গৃহকর্মী

» শেরপুরে জেলা মহিলা আ’লীগের সভানেত্রী শামছুন্নাহার কামাল করোনায় আক্রান্ত

» ঝিনাইগাতীতে কৃষকদের প্রযুক্তি হস্তান্তর প্রশিক্ষণ

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  বিকাল ৪:১১ | রবিবার | ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে নিহত ১১

রাঙামাটি : রাঙামাটি জেলার নানিয়ারচরে পাহাড় ধসে ১১জন নিহত হয়েছে। ১২ জুন মঙ্গলবার ভোরে নানিয়ারচর উপজেলার পৃথক ৫টি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।গ্রামগুলো হলো-নানিয়ারচর উপজেলার বুড়ীঘাট, ধরমপাশা, আমতলী, বড়পুল ও ছড়াইপাড়া গ্রাম।
রাঙামাটি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তাপশ শীল এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তবে তাৎক্ষণিক নিহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। প্রশাসনের একটি দল উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া টানা বর্ষণে নানিয়ারচর উপজেলার ইসলামপুরে-৪৫টি, বগাছড়িতে-৪২ ও বুড়িঘাটে-একটি স্থানে পাহাড় ধস হয়েছে। এসব এলাকায় মানুষের বাড়ি-ঘরের ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মানুষদের জন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২১টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। পাহাড় ঘেষে বসবাসরত মানুষদের মাকিং করে নিরাপদ স্থানে সড়ে যেতে বলা হচ্ছে। টান বর্ষণে পাহাড় ধসের আতঙ্কে ঘর ছাড়তে শুরু করেছে মানুষ।
নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা জানান, রাতে ভারি বৃষ্টিতে পাহাড় ভেঙ্গে মাটিচাপা পড়ে বুড়িঘাট ইউনিয়নে ছয়জন ও নানিয়ারচর ইউনিয়নে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে উপজেলার ৩নং বুড়িঘাট ইউনিয়নের ধরমপাশা কার্বারি পাড়ার স্মৃতি চাকমা (২৩) ও তার ছেলে আয়ুব দেওয়ান। এছাড়া বাকিদের নাম পরিচয় জানতে পারিনি।
জানা গেছে, গত ৪দিনের টানা বর্ষণে তছনছ হয়ে গেছে রাঙামাটি। পাহাড় ধসে বিধ্বস্ত হয়ে গেছে অসংখ্য বাড়িঘর। ধসে পড়ছে পিলার, বাড়ি-ঘরের প্লাস্টার ও সীমানা পাচির। সড়কে সড়েকে জমেছে মাটির স্তুপ। উপছে পড়েছে গাছ পালা। বৃষ্টির পানি পড়ার কারণে বৈদ্যতিক খুঁটিগুলো থেকে ছিড়ে পড়ছে আগুন। রাত থেকে দিনে অর্ধেক সময় বিদ্যুৎ বিহীন ছিল রাঙামাটি। এছাড়া শহরের রাঙামাটি চেম্বার অব কর্মাস ভবনের পাশ্ববর্তী সড়ক, সিনিয়র মাদ্রাসার পাশ্ববর্তী দেয়াল ও চম্পকনগর এলাকায় পরিবার পরিকল্পনা অফিসের দেয়াল, টিটিসি, বিজিবি রোড, ডিয়ার পার্ক, ঘাগড়া, সাপছড়ি, রাঙাপানি, পুলিশ লাইন ধসের ঘটনা ঘটেছে।
রাঙামাটি সড়ক জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. এমদাদ হোসেন জানান, গত চারদিনের টানা বর্ষণে রাঙামাটি জেলায় প্রায় ১২৮টি স্থানে পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটেছে। পাঁচটিরও অধিক স্থানে সড়ক ভেঙ্গে গেছে। সড়কের কংক্রিট উঠে বড় বড় খানাখন্দ আর গর্তে পরিণত হয়েছে। এতে যানবাহন চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। পাহাড় থেকে মাটির নেমে সড়কে স্তুপে পরিণত হয়েছে।
রাঙামাটি  জেলা সিভিল সার্জন ড. শহীদ তালুকদার জানান, নানিয়ারচর উপজেলায় পাহাড় ধসের ১১জনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। কয়েকজনকে উপজেলা স্থাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়েছে। এখনো উদ্ধার তৎপরতা চলছে।
প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে এই দিনে রাঙামাটি পাহাড় ধসে ১২০জন মানুষ প্রাণ হারায়। আহত হয় অর্ধশতাধিক। এছাড়া সেসময় ১৪৫টি স্থানে পাহাড় ধসে সারা দেশের সাথে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় রাঙামাটি।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!