দুপুর ১:৪৮ | মঙ্গলবার | ৩১শে মার্চ, ২০২০ ইং | ১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মিমিকে বলা হচ্ছে সব থেকে সুন্দরী সাংসদ

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : লোকসভা নির্বাচন ২০১৯, সবে শেষ হয়ে হয়েছে ফল বেরিয়েছে দিন কয়েক আগে ৷ ভারতের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে যাদবপুর কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী ৷ তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার এক পরিচিত মুখ ৷ মিমিকে সব থেকে সুন্দরী সাংসদ বলা হচ্ছে ৷ সদ্য রাজনীতিতে পা রাখা মিমি চক্রবর্তী বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়িকাও ৷ এই বছরই মিমির ২টি মুক্তি পেতে চলেছে ৷

img-add

তৃণমূল কংগ্রেসনেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় মিমিকে যাদবপুর কেন্দ্র থেকে দলীয় প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দিয়েছিলেন ৷ যাদবপুর কেন্দ্র থেকে ৪৭.৯১ শতাংশ হারে মোট ৬,৮৮,৪৭২ টি ভোট পেয়েছেন ৷ তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপির প্রতিদ্বন্দ্বী অনুপম হাজরা ২৭.৩৭ শতাংশ হারে মোট ৩,৯৩,২৩৩ টি ভোট পেয়েছেন ৷ তৃতীয় স্থানে সিআইএম প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য ২১.০৪ শতাংশ হারে মোট ৩,০২,২৬৪ টি ভোট পেয়েছেন ৷

প্রায় ৩ লক্ষ ভোটে জিতেছেন ৷ ভোটযুদ্ধে মিমিকে নিয়ে বিরোধীরা অনেক আক্রমণ শানিয়েছিলেন ৷ একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। ভোটে নামার আগে তাঁর পরিচয় ছিল তিনি শুধুমাত্র একজন অভিনেত্রীই ৷ প্রায় দুমাস ধরে বেশিরভাগ সময়ে নির্বাচনী প্রচার ও কর্মিসভা নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন তিনি ৷ শরীরচর্চাও তেমন ভাবে করা হয়নি ৷ শুটিং তো দূরের বিষয় নাওয়া-খাওয়াও সময় ছিলনা ৷ সেই সময়েই একটি ভিডিও যাবতীয় বিতর্কের সৃষ্টি করেছিল৷

হাতে গ্রাভস পরে সাধারণ মানুষের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করতে দেখা গিয়েছিল মিমিকে ৷ সেই সময়ে হাতে চোট পেয়েছিলেন মিমি ৷ পরে তাঁকে এই বিষয়ে আলাদা করে বিবৃতি দিতে হয়েছিল ৷ তবে এই ভিডিও কেনও প্রভাবই ফেলতে পারেনি ৷ যাদবপুর থেকে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন মিমি ৷

২০০৮ সালে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন ৷ ফেমিনা মিস ইন্ডিয়ায় অংশগ্রহণ করেছিলেন মিমি ৷ একটি টিভি সিরিয়ালের মাধ্যমেই বেশি জনপ্রিয় হয়েছিলেন ৷ একের পর এক সুপারহিট ছবিতে অভিনয় করেছেন মিমি ৷ ২০১২ সালে বাপি বাড়ি যার পরে ২১ সিনেমা করেছেন ৷ এই বছরেরও মিমির তাঁর ২টি ছবি মুক্তি পাবে বলেই জানা গিয়েছে ৷ অনবদ্য অভিনয়ের জন্য তিনি এখনও পর্যন্ত তাঁর পুরস্কার পেয়েছেন ৷ বর্তমানে বাংলা চলচ্চিত্রের এক পরিচিত রূপ ৷

মিমির বয়স ৩০ বছর ৷ জলপাইগুড়েতে ১৯৮৯ সালে জন্মেছিলেন ৷ জীবনের শুরুর দিকে বেশ কিছুদিন অরুণাচল প্রদেশে ছিলেন ৷ জলপাইগুড়িতে লেখাপড়া শুরু হয়েছে ৷ আশুতোষ কলেজ থেকে লেখাপড়া করেছেন ৷ ছায়াছবির আগে থিয়েটার করতেন তিনি ৷ অবিনয়ের ট্রেনিং নিয়েছিলেন তিনি ৷ ২০০৮ সালে পুরোপুরি ভাবে সিনেমায় নেমেছেন মিমি ৷
বাপি বাড়ি যা ছবিতে অভিনয় সূত্রে পেয়েছিলেন পরিচিতি ৷ এরপরেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছিল মিমির ৷ মমতার সঙ্গে পরিচিয়ের পরেই রাজনীতিতে আসার বিষয়টি ভাবতে শুরু করেছিলেন ৷ এবার যাদবপুর কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়ে দেশের সব থেকে সুন্দরী সাংসদ হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন মিমি ৷

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» জ্বর-সর্দি-কাশি-শ্বাসকষ্টে সারাদেশে ৬ জনের মৃত্যু

» করোনা ভাইরাসের তান্ডবে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু ৩০০০ ছাড়ালো

» সাধারণ ছুটির মেয়াদ বাড়বে : শেখ হাসিনা

» ঝিনাইগাতীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ভাতিজার হাতে বৃদ্ধ চাচা খুন : গ্রেফতার ১

» শেরপুরে হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রুমান

» করোনা প্রতিরোধে শেরপুরে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালাচ্ছে পুলিশ

» করোনা জনসচেতনতায় কুদ্দুস বয়াতীর গান

» অরবিয়া তানজীল’র গদ্য ‌’উড়ন্ত মানবী’

» করোনা প্রতিরোধে নকলা পৌর মেয়রের মাস্ক বিতরণ

» শ্রীবরদীতে সাবান ও মাস্ক বিতরণ করলেন সাংসদ চাঁন

» ফলো-আপ ॥ শেরপুরে খামার পাহারাদার হত্যা মামলায় ২ আসামি গ্রেফতার

» ২ হাজার পরিবারকে সহায়তা দিলেন সাকিব

» শেরপুরে জীবাণুনাশক স্প্রে করছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

» করোনা ভাইরাস : প্রতি ৯ মিনিটে ১ জনের মৃত্যু হচ্ছে নিউইয়র্কে

» শেরপুরে করোনা প্রতিরোধে পৌরসভার জীবাণুনাশক স্প্রে কাজে যুক্ত হলো ফায়ার সার্ভিস

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  দুপুর ১:৪৮ | মঙ্গলবার | ৩১শে মার্চ, ২০২০ ইং | ১৭ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

মিমিকে বলা হচ্ছে সব থেকে সুন্দরী সাংসদ

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : লোকসভা নির্বাচন ২০১৯, সবে শেষ হয়ে হয়েছে ফল বেরিয়েছে দিন কয়েক আগে ৷ ভারতের সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে যাদবপুর কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী ৷ তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার এক পরিচিত মুখ ৷ মিমিকে সব থেকে সুন্দরী সাংসদ বলা হচ্ছে ৷ সদ্য রাজনীতিতে পা রাখা মিমি চক্রবর্তী বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় নায়িকাও ৷ এই বছরই মিমির ২টি মুক্তি পেতে চলেছে ৷

img-add

তৃণমূল কংগ্রেসনেত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় মিমিকে যাদবপুর কেন্দ্র থেকে দলীয় প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দিয়েছিলেন ৷ যাদবপুর কেন্দ্র থেকে ৪৭.৯১ শতাংশ হারে মোট ৬,৮৮,৪৭২ টি ভোট পেয়েছেন ৷ তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপির প্রতিদ্বন্দ্বী অনুপম হাজরা ২৭.৩৭ শতাংশ হারে মোট ৩,৯৩,২৩৩ টি ভোট পেয়েছেন ৷ তৃতীয় স্থানে সিআইএম প্রার্থী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য ২১.০৪ শতাংশ হারে মোট ৩,০২,২৬৪ টি ভোট পেয়েছেন ৷

প্রায় ৩ লক্ষ ভোটে জিতেছেন ৷ ভোটযুদ্ধে মিমিকে নিয়ে বিরোধীরা অনেক আক্রমণ শানিয়েছিলেন ৷ একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। ভোটে নামার আগে তাঁর পরিচয় ছিল তিনি শুধুমাত্র একজন অভিনেত্রীই ৷ প্রায় দুমাস ধরে বেশিরভাগ সময়ে নির্বাচনী প্রচার ও কর্মিসভা নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন তিনি ৷ শরীরচর্চাও তেমন ভাবে করা হয়নি ৷ শুটিং তো দূরের বিষয় নাওয়া-খাওয়াও সময় ছিলনা ৷ সেই সময়েই একটি ভিডিও যাবতীয় বিতর্কের সৃষ্টি করেছিল৷

হাতে গ্রাভস পরে সাধারণ মানুষের সঙ্গে হ্যান্ডশেক করতে দেখা গিয়েছিল মিমিকে ৷ সেই সময়ে হাতে চোট পেয়েছিলেন মিমি ৷ পরে তাঁকে এই বিষয়ে আলাদা করে বিবৃতি দিতে হয়েছিল ৷ তবে এই ভিডিও কেনও প্রভাবই ফেলতে পারেনি ৷ যাদবপুর থেকে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন মিমি ৷

২০০৮ সালে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন ৷ ফেমিনা মিস ইন্ডিয়ায় অংশগ্রহণ করেছিলেন মিমি ৷ একটি টিভি সিরিয়ালের মাধ্যমেই বেশি জনপ্রিয় হয়েছিলেন ৷ একের পর এক সুপারহিট ছবিতে অভিনয় করেছেন মিমি ৷ ২০১২ সালে বাপি বাড়ি যার পরে ২১ সিনেমা করেছেন ৷ এই বছরেরও মিমির তাঁর ২টি ছবি মুক্তি পাবে বলেই জানা গিয়েছে ৷ অনবদ্য অভিনয়ের জন্য তিনি এখনও পর্যন্ত তাঁর পুরস্কার পেয়েছেন ৷ বর্তমানে বাংলা চলচ্চিত্রের এক পরিচিত রূপ ৷

মিমির বয়স ৩০ বছর ৷ জলপাইগুড়েতে ১৯৮৯ সালে জন্মেছিলেন ৷ জীবনের শুরুর দিকে বেশ কিছুদিন অরুণাচল প্রদেশে ছিলেন ৷ জলপাইগুড়িতে লেখাপড়া শুরু হয়েছে ৷ আশুতোষ কলেজ থেকে লেখাপড়া করেছেন ৷ ছায়াছবির আগে থিয়েটার করতেন তিনি ৷ অবিনয়ের ট্রেনিং নিয়েছিলেন তিনি ৷ ২০০৮ সালে পুরোপুরি ভাবে সিনেমায় নেমেছেন মিমি ৷
বাপি বাড়ি যা ছবিতে অভিনয় সূত্রে পেয়েছিলেন পরিচিতি ৷ এরপরেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছিল মিমির ৷ মমতার সঙ্গে পরিচিয়ের পরেই রাজনীতিতে আসার বিষয়টি ভাবতে শুরু করেছিলেন ৷ এবার যাদবপুর কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়ে দেশের সব থেকে সুন্দরী সাংসদ হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন মিমি ৷

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!