সন্ধ্যা ৬:২৯ | মঙ্গলবার | ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মঙ্গা-দারিদ্র দূরীকরণে ভূমিকা রাখছে স্বল্প জীবনকালের ফসল ॥ শেরপুরে বিনা মহাপরিচালক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশে প্রতিনিয়ত জমির পরিমাণ কমলেও বাড়ছে খাদ্য চাহিদা। এমন পরিস্থিতিতে ফসল উৎপাদনে লাভজনক শস্যবিন্যাস প্রযুক্তি ও উন্নত জাত ব্যবহার করতে হবে। এক জমিতে ৩/৪ ফসল করা গেলে ফলন বাড়বে। এজন্য বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা) স্বল্প মেয়াদী উচ্চ ফলনশীল বিভিন্ন ফসলের ১১২ টি উন্নত জাত উদ্ভাবন করেছে। শেরপুরে ‘বিনা উদ্ভাবিত উচ্চ ফলনশীল ও উন্নতজাতের পরিচিতি’ শীর্ষক এক কৃষক ওয়ার্কপপে মুঠোফোনে প্রধান অতিথির বক্তব্য দানকালে এমন কথা জানান বিনা মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম। শেরপুর খামারবাড়ী মিলনায়তনে ৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার দিনব্যাপী ওই কৃষক ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়। ওইসময় তিনি বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে কৃষকের আয় দ্বিগুণ করার চিন্তা করছে সরকার। এজন্য এক বিঘা জমি (৩৩ শতক) থেকে কৃষক যাতে ৫০/৬০ হাজার টাকা আয় করতে পারে তার চিন্তা করতে হবে। আমন মৌসুমে ১০৫ থেকে ১১৫ দিনে ঘরে তোলা যায় এমন জাতের বিনা ধান-৭, ১৬, ১৭ চাষ করার পর সেই জমিতে ৮০/৯০ দিনের ফসল বিনা সরিষা-৯ আবাদ করে বাড়তি আয় করা যায়। সরিষা কেটে বোরো মৌসুমে বিনা ধান-১২, ১৪, ২৪ চাষ করা যায়। এরপর আউশে বিনা ধান-১৯ আবাদ করে কৃষকরা আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারেন। তাছাড়া বিনা উদ্ভাবিত মুগ, মশুর, ছোলা, টমাটো, মরিচ, পেয়াজ, চিনাবাদাম, তিল চাষ করেও আর্থিকভাবে লাভবান হওয়া যায়। কিছুদিন পর পরই ফসল ওঠায় দরিদ্র মানুষ যেমন কাজ পাচ্ছে, তেমনি কৃষকরা ফসল বিক্রী করে নগদ অর্থ পাচ্ছে। বিনা উদ্ভাবিত স্বল্প জীবনকালের এসব জাত সমূহ ইতোমধ্যে মঙ্গা ও দারিদ্র দূরীকরণে ব্যাপক ভুমিকা রাখছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

img-add

ওয়ার্কশপের উদ্বোধন ও সভাপতিত্ব করেন বিনা’র পরিচালক (গবেষণা) ড. হোসনে আরা বেগম। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ময়মনসিংহ অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ মো. আব্দুল মাজেদ, শেরপুর খামারবাড়ীর উপ-পরিচালক ড. মোহিত কুমার দে, জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা এফএম মোবারক আলী, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য উৎপাদন) সাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ। বিনা ময়মনসিংহের উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আব্দুল মালেক এবং বিনা নালিতাবাড়ী কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মাহবুবুল আলম ওয়ার্কশপটি পরিচালনা করেন। এসময় তারা কৃষকদের উদ্দেশ্যে কিভাবে এবং কোন পদ্ধতিতে অল্প সময়ে বেশি ফলন পাওয়া যাবে সেই বিষয়ে কৃষকদের অবহিত করেন। একইসাথে বিনা উদ্ভাবিত বিভিন্ন ফসল উৎপাদনে কৃষকরা কী ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হয়ে থাকেন সেসব বিষয়ে শুনে তার প্রতিকারে পরামর্শ প্রদান করেন। বিনা ময়মনসিংহ আয়োজিত এ কৃষক ওয়ার্কশপে জেলার ৩ উপজেলা সদর, শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতী উপজেলার ৬০ জন কৃষক-কৃষানী ও মাঠ পর্যায়ের উপ-সহকারি কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শেরপুরে ৬ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষনা ॥ ২ প্রার্থীর বাতিল

» অভিষেক হতে পারে হাসান মাহমুদের

» ত্বক ও চুল ভালো রাখার ৩ উপায় জেনে নিন

» নির্ধারিত সময়েই হবে টোকিও অলিম্পিক : জাপানের প্রধানমন্ত্রী

» খুলনা শেখ হাসিনা মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় বিল সংসদে

» চলে গেলেন বিশিষ্ট অভিনেতা মজিবুর রহমান দিলু

» ঝিনাইগাতীতে লিগ্যাল এইডের প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানী অনুষ্ঠিত

» চট্টগ্রাম থেকে সেন্টমার্টিন যাবে বিলাসবহুল ক্রুজশিপ বে-ওয়ান

» বাইডেনের অভিষেক ঘিরে যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা

» ‘পৌর নির্বাচনে সংঘাত এড়াতে কঠোর সরকার’ : ওবায়দুল কাদের

» উইন্ডিজের বিপক্ষে টাইগারদের বিশেষ জার্সি

» জেনে নিন বেলের উপকারিতা

» ১৭ বছরের ক্লাব ক্যারিয়ারে প্রথম লালকার্ড দেখলেন মেসি

» বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন পরিচালক আহমেদ জামাল

» রাজনৈতিক পরিচয় থাকলেও অপরাধীকে কোনো ছাড় নয়: ওবায়দুল কাদের

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  সন্ধ্যা ৬:২৯ | মঙ্গলবার | ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মঙ্গা-দারিদ্র দূরীকরণে ভূমিকা রাখছে স্বল্প জীবনকালের ফসল ॥ শেরপুরে বিনা মহাপরিচালক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশে প্রতিনিয়ত জমির পরিমাণ কমলেও বাড়ছে খাদ্য চাহিদা। এমন পরিস্থিতিতে ফসল উৎপাদনে লাভজনক শস্যবিন্যাস প্রযুক্তি ও উন্নত জাত ব্যবহার করতে হবে। এক জমিতে ৩/৪ ফসল করা গেলে ফলন বাড়বে। এজন্য বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিনা) স্বল্প মেয়াদী উচ্চ ফলনশীল বিভিন্ন ফসলের ১১২ টি উন্নত জাত উদ্ভাবন করেছে। শেরপুরে ‘বিনা উদ্ভাবিত উচ্চ ফলনশীল ও উন্নতজাতের পরিচিতি’ শীর্ষক এক কৃষক ওয়ার্কপপে মুঠোফোনে প্রধান অতিথির বক্তব্য দানকালে এমন কথা জানান বিনা মহাপরিচালক ড. মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম। শেরপুর খামারবাড়ী মিলনায়তনে ৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার দিনব্যাপী ওই কৃষক ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়। ওইসময় তিনি বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে কৃষকের আয় দ্বিগুণ করার চিন্তা করছে সরকার। এজন্য এক বিঘা জমি (৩৩ শতক) থেকে কৃষক যাতে ৫০/৬০ হাজার টাকা আয় করতে পারে তার চিন্তা করতে হবে। আমন মৌসুমে ১০৫ থেকে ১১৫ দিনে ঘরে তোলা যায় এমন জাতের বিনা ধান-৭, ১৬, ১৭ চাষ করার পর সেই জমিতে ৮০/৯০ দিনের ফসল বিনা সরিষা-৯ আবাদ করে বাড়তি আয় করা যায়। সরিষা কেটে বোরো মৌসুমে বিনা ধান-১২, ১৪, ২৪ চাষ করা যায়। এরপর আউশে বিনা ধান-১৯ আবাদ করে কৃষকরা আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারেন। তাছাড়া বিনা উদ্ভাবিত মুগ, মশুর, ছোলা, টমাটো, মরিচ, পেয়াজ, চিনাবাদাম, তিল চাষ করেও আর্থিকভাবে লাভবান হওয়া যায়। কিছুদিন পর পরই ফসল ওঠায় দরিদ্র মানুষ যেমন কাজ পাচ্ছে, তেমনি কৃষকরা ফসল বিক্রী করে নগদ অর্থ পাচ্ছে। বিনা উদ্ভাবিত স্বল্প জীবনকালের এসব জাত সমূহ ইতোমধ্যে মঙ্গা ও দারিদ্র দূরীকরণে ব্যাপক ভুমিকা রাখছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

img-add

ওয়ার্কশপের উদ্বোধন ও সভাপতিত্ব করেন বিনা’র পরিচালক (গবেষণা) ড. হোসনে আরা বেগম। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ময়মনসিংহ অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ মো. আব্দুল মাজেদ, শেরপুর খামারবাড়ীর উপ-পরিচালক ড. মোহিত কুমার দে, জেলা প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা এফএম মোবারক আলী, অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য উৎপাদন) সাখাওয়াত হোসেন প্রমুখ। বিনা ময়মনসিংহের উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আব্দুল মালেক এবং বিনা নালিতাবাড়ী কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মাহবুবুল আলম ওয়ার্কশপটি পরিচালনা করেন। এসময় তারা কৃষকদের উদ্দেশ্যে কিভাবে এবং কোন পদ্ধতিতে অল্প সময়ে বেশি ফলন পাওয়া যাবে সেই বিষয়ে কৃষকদের অবহিত করেন। একইসাথে বিনা উদ্ভাবিত বিভিন্ন ফসল উৎপাদনে কৃষকরা কী ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হয়ে থাকেন সেসব বিষয়ে শুনে তার প্রতিকারে পরামর্শ প্রদান করেন। বিনা ময়মনসিংহ আয়োজিত এ কৃষক ওয়ার্কশপে জেলার ৩ উপজেলা সদর, শ্রীবরদী ও ঝিনাইগাতী উপজেলার ৬০ জন কৃষক-কৃষানী ও মাঠ পর্যায়ের উপ-সহকারি কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!