প্রকাশকাল: 26 জুন, 2019

ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগেই মাহমুদউল্লাহর সেরে উঠার আশা মাশরাফির

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : সাউদাম্পটনে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৬২ রানে জিতে স্বস্তি ফিরেছে টাইগার শিবিরে। তবে অভিজ্ঞ মিডলঅর্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের চোট কপালে ভাঁজ ফেলছে মাশরাফি-সাকিবদের। সোমবারের রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ জিতে জয়ে ফিরে বাংলাদেশ। এই জয়ে অনন্য ভূমিকা রাখেন অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তার স্পিন বিষে নীল হয় আফগানিস্তান। তবে জয়ের জন্য যে পুঁজিটা দরকার ছিল সেটি গড়ে দেন মুশফিক-তামিম-মাহমুদউল্লাহরা। এদিন ৩৮ বলে ২৭ রান করেন আগের ম্যাচে ৬৯ রান করা মাহমুদউল্লাহ। কাফ ইনজুরিতে পড়েছেন এ টাইগার মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান। সে কারণেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ে নামেননি মাহমুদউল্লাহ।
বাংলাদেশের পরবর্তী খেলা ভারতের বিপক্ষে। ওই ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর খেলা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। অভিজ্ঞ ও ইনফর্মার এই মিডলঅর্ডারের অনুপস্থিতি বাংলাদেশের জন্য ক্ষতিকর। তবে মাহমুদউল্লাহ ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগেই সেরে উঠবেন এমনটিই আশা টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার।
মঙ্গলবার সকালে মাহমুদউল্লাহকে টিম হোটেলে দেখা গেছে ক্রাচে ভর করে হাঁটতে। ছেলে রায়িদকে পাশে নিয়ে ধীরে ধীরে উঠেন টিম বাসে। বার্মিংহ্যামে যাওয়ার দৃশ্য এটি। দৃশ্যটি যথেষ্টই শঙ্কা জাগানোর মতো। তবে বাংলাদেশের অধিনায়ক ও ম্যানেজারের বিশ্বাস, ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে পাওয়া যাবে এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটারকে।
স্ক্যানে মাহমুদউল্লাহর কাফ মাসলে গ্রেডওয়ান টিয়ার ধরা পড়েছে। মাশরাফি বিন মুর্তজা কথা বলেছেন মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে। পরে জানান, স্ক্যানের রিপোর্ট দেখার পর ফিজিও বলেছেন যে অন্তত ৭ থেকে ১০ দিনের বিশ্রামে থাকতে হবে মাহমুদউল্লাহকে। তখনই রিয়াদ বলেছে যে ভারতের বিপক্ষে সে খেলবেই। অবস্থা যেমনই হোক। আশা করি, সাত দিনে অনেকটা ঠিক হয়ে উঠবে।
ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, ‘ওর চোট সেরে ওঠার মতো। এখনও সাত দিন সময় আছে। ফিজিও চেষ্টা করবেন ওকে যতটা সম্ভব সারিয়ে তোলার। যদিও এখন ফিফটি-ফিফটি অবস্থা, এখনই বলা কঠিন। তবে আমরা আশা করি তাকে পাব।’
মাহমুদউল্লাহ বাংলাদেশ দলের অপরিহার্য সদস্য। এবারের বিশ্বকাপে সেটির প্রমাণ রেখেছেন তিনি। এবারের আসরের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে মাহমুদউল্লাহ ৩৩ বলে করেছিলেন ৪৬ রান। এর পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে করেন ৫০ বলে ৬৯ রান। অন্য ম্যাচগুলোতেও রান পেয়েছেন। আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাহমুদউল্লাহর দারুণ সূচনার প্রশংসা করে মাশরাফি বলেন, ‘সোমবার পায়ের ওই অবস্থায়ই রিয়াদ খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জুটি গড়েছে মুশফিকের সঙ্গে। যতটা সম্ভব দ্রুত রান নিয়েছে। আমি নিশ্চিত, ভারতের বিপক্ষে খেলার সামান্য সুযোগ থাকলেও সে খেলবে। মানসিক জোর যেহেতু আছে, শারীরিক কিছু ঘাটতি থেকে গেলেও পুষিয়ে নিতে পারবে।’
সোমবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচে ব্যাটিংয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পর থেকেই দৌড়ের সময় খোঁড়াতে থাকেন মাহমুদউল্লাহ। ফিজিওকে মাঠে যেতে হয় দুই দফায়। তবু উইকেট না ছেড়ে ব্যাটিং চালিয়ে যান। ২৭ রানের ইনিংস খেলার পথে মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে গড়েন ৬৬ রানের মূল্যবান জুটি। পরে আর ফিল্ডিং করেননি।
এবারের বিশ্বকাপের শুরু থেকেই বাংলাদেশ দলে একের পর এক চোট হানা দিচ্ছে। গেল ২৫ মে কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনসে অনুশীলনের সময় পিছলে পড়ে ঊরুর কিছুটা ওপরে পাওয়া হালকা চোটে ২৮ মে ভারতের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নামানো হয়নি ওপেনার তামিম ইকবালকে।
ঊরুর চোটের কারণে শ্রীলংকার বিপক্ষে ম্যাচে স্কোয়াডে রাখা হয়নি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিবকে। যদিও বৃষ্টির কারণে ওই ম্যাচ মাঠে গড়ায়নি।
ওই ম্যাচে সাইডস্ট্রেনের পুরনো চোট ফিরে আসায় ভাবনায় পড়তে হয়েছিল টাইগার দলপতি মাশরাফিকে নিয়েও। যদিও সেই ব্যথা অল্প চিকিৎসাতেই প্রশমিত হয়েছে। এর পর পিঠের পুরনো ব্যথা ফিরে আসায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ডাগ আউটে কাটাতে হয়েছে সাইফউদ্দিনকে।
আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ম্যাচে কাঁধের চোটে অজিদের বিপক্ষে নামা হয়নি মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের। তবে ভাগ্য দেবীর প্রসন্ন দৃষ্টি থাকায় অল্পতেই অভিশপ্ত চোট থেকে রক্ষা পেয়ে সাউদাম্পটনে আফগানবধে ভূমিকা রেখেছেন সাইফ-সৈকত।

আপনার মতামত দিন

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

error: Content is protected !!