রাত ৪:৩৬ | বুধবার | ২৭শে মে, ২০২০ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা সততা নিয়ে কাজ করলেই দেশ এগিয়ে যাবে : প্রধানমন্ত্রী

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘নিজেদের ভাগ্য উন্নয়নে নয়, মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করি বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। অনেকে বলেন- উন্নয়নের পেছনে ম্যাজিক কী? অামি বলি ম্যাজিক কিছুই না সততা, নিষ্ঠা অার একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করলেই যেকোনো দেশের উন্নয়ন সম্ভব।’ তিনি বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা যদি সততা, নিষ্ঠা ও একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করেন তাহলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। তিনি ৬ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার শাহবাগে বেলা ১১টায় বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন একাডেমিতে চলমান ১০৭, ১০৮ ও ১০৯তম আইন এবং প্রশাসন কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওইসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত অারা সাদেক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ফয়েজ অাহমদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিএস প্রশাসন একাডেমির রেক্টর মোশাররফ হোসেন।
প্রশিক্ষণে অংশ গ্রহণকারীদের মধ্যে প্রতিক্রিয়া ও অনুভুতি ব্যাক্ত করে বক্তব্য রাখেন রেক্টর অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত স ম অাজহারুল ইসলাম সনিক, শরীফ অাসিফ রহমান ও মুশারেফ হুসাইন।
অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন। প্রধানমন্ত্রীকে বই ও শুভেচ্ছা স্বারক প্রদান করেন বিসিএস প্রশাসন একাডেমির রেক্টর মোশাররফ হোসেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সততাই শক্তি- দেশের মানুষের প্রতি এই দায়িত্ববোধ থেকে কাজ করলে বাংলাদেশ আরও উন্নত হবে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। আর আজকের বাংলাদেশ এগিয়ে নেয়ার সৈনিক হলেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা।
তিনি বলেন, অামরা ২১০০ সালের জন্য ডেল্টা প্লান করেছি। আমরা নেদারল্যান্ড সরকারের সঙ্গে এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব। এ ছাড়া এর অাগে ২০২১ সালে আমরা বাংলাদেশকে যেভাবে দেখতে চাই বা আরও উন্নত দেখতে চাই অাজকের কর্মকর্তারাই বাংলাদেশকে সে জায়গায় নিয়ে যাবেন। দেশের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার পর থেকেই কীভাবে বাংলাদেশকে উন্নত করা যায়, বিশ্বদরবারে বাংলাদেশকে কীভাবে সম্মানের আসনে বসানো যায় সেই হিসেবে কাজ করেছি। পদ্মা সেতু নিয়ে একটা চ্যালেঞ্জ ছিল আমরা সে চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে মিথ্যা অপবাদ সবকিছু ভেদ করে এগিয়ে চলেছি। তারা পদ্মা সেতুর বিষয়ে আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনেছিল কানাডার অাদালত সেটাকে মিথ্যা এবং ভুয়া হিসেবে প্রমাণিত করেছে। অামরা নিজেদের টাকা দিয়ে পদ্মা সেতু করার যে উদ্যোগ নিয়েছি তা অাজ দৃশ্যমান। এই একটা সিদ্ধান্তই বাংলাদেশের মান মর্যাদা অাজ অনেক ওপরে তুলেছে।
তিনি বলেন, কোনো সরকার যদি ব্যবসা করে তাহলে সে সরকার কখনোই দেশের উন্নয়ন করতে পারে না। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। এজন্য অামাদের দেশেই অালাদা কিছু লোক অাছে। বিশ্বের অনেক দেশ জানতো- বাংলাদেশ মানে ভিক্ষুকের দেশ; ঝড়, বন্যা, খরা অার দুর্যোগের দেশ। এ ছাড়া ভিক্ষুকের জাতি বলেও জানতো। আমরা সে বদনাম ঘুচিয়ে দিয়েছি। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশ। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বিশ্বের বড় বড় দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদেরকে চলতে হবে। পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করতে হবে তাহলেই বাংলাদেশ উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্ব দরবারে প্রতিষ্ঠিত হবে।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শেরপুরে প্রেমের অভিনয়ে মোবাইল ফোনে স্কুলছাত্রীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ : ধর্ষকসহ গ্রেফতার ৩

» ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা বেগমের মৃত্যু

» এবার বিয়ে বিতর্কে নোবেল

» ভারত মহাসাগরের টেকটনিক প্লেট ভেঙে দু’টুকরা, ভয়াবহ ভূমিকম্পের আশঙ্কা

» সিরাজগঞ্জে নৌকাডুবি, শিশুসহ ৩ জনের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ ৩০

» মালদ্বীপ থেকে ফিরলেন ১২০০ জন

» ঈদের দিনও বিষোদগার থেকে বেরুতে পারেনি বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

» ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত ১১৬৬, মৃত্যু ২১

» করোনায় নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যু

» ঝিনাইগাতীতে কালবৈশাখীর ছোবলে ঘরবাড়ি ও সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি

» শেরপুরে করোনা পরিস্থিতে মসজিদে মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়

» ভিন্ন এক আবহে অন্যরকম ঈদ উদযাপন

» সম্প্রীতির শিক্ষা ছড়িয়ে পড়ুক, গড়ে উঠুক সমৃদ্ধ দেশ : রাষ্ট্রপতি

» শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ পালন করুন : কাদের

» তিনটি জীবন্ত ‘করোনা ভাইরাস’ ছিল উহানের ল্যাবে!

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  রাত ৪:৩৬ | বুধবার | ২৭শে মে, ২০২০ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা সততা নিয়ে কাজ করলেই দেশ এগিয়ে যাবে : প্রধানমন্ত্রী

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘নিজেদের ভাগ্য উন্নয়নে নয়, মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করি বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। অনেকে বলেন- উন্নয়নের পেছনে ম্যাজিক কী? অামি বলি ম্যাজিক কিছুই না সততা, নিষ্ঠা অার একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করলেই যেকোনো দেশের উন্নয়ন সম্ভব।’ তিনি বলেন, প্রজাতন্ত্রের কর্মচারীরা যদি সততা, নিষ্ঠা ও একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করেন তাহলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। তিনি ৬ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার শাহবাগে বেলা ১১টায় বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস প্রশাসন একাডেমিতে চলমান ১০৭, ১০৮ ও ১০৯তম আইন এবং প্রশাসন কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওইসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত অারা সাদেক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ফয়েজ অাহমদ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিসিএস প্রশাসন একাডেমির রেক্টর মোশাররফ হোসেন।
প্রশিক্ষণে অংশ গ্রহণকারীদের মধ্যে প্রতিক্রিয়া ও অনুভুতি ব্যাক্ত করে বক্তব্য রাখেন রেক্টর অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত স ম অাজহারুল ইসলাম সনিক, শরীফ অাসিফ রহমান ও মুশারেফ হুসাইন।
অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন। প্রধানমন্ত্রীকে বই ও শুভেচ্ছা স্বারক প্রদান করেন বিসিএস প্রশাসন একাডেমির রেক্টর মোশাররফ হোসেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সততাই শক্তি- দেশের মানুষের প্রতি এই দায়িত্ববোধ থেকে কাজ করলে বাংলাদেশ আরও উন্নত হবে। বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে। আর আজকের বাংলাদেশ এগিয়ে নেয়ার সৈনিক হলেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা।
তিনি বলেন, অামরা ২১০০ সালের জন্য ডেল্টা প্লান করেছি। আমরা নেদারল্যান্ড সরকারের সঙ্গে এ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব। এ ছাড়া এর অাগে ২০২১ সালে আমরা বাংলাদেশকে যেভাবে দেখতে চাই বা আরও উন্নত দেখতে চাই অাজকের কর্মকর্তারাই বাংলাদেশকে সে জায়গায় নিয়ে যাবেন। দেশের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখবেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার পর থেকেই কীভাবে বাংলাদেশকে উন্নত করা যায়, বিশ্বদরবারে বাংলাদেশকে কীভাবে সম্মানের আসনে বসানো যায় সেই হিসেবে কাজ করেছি। পদ্মা সেতু নিয়ে একটা চ্যালেঞ্জ ছিল আমরা সে চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে মিথ্যা অপবাদ সবকিছু ভেদ করে এগিয়ে চলেছি। তারা পদ্মা সেতুর বিষয়ে আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ এনেছিল কানাডার অাদালত সেটাকে মিথ্যা এবং ভুয়া হিসেবে প্রমাণিত করেছে। অামরা নিজেদের টাকা দিয়ে পদ্মা সেতু করার যে উদ্যোগ নিয়েছি তা অাজ দৃশ্যমান। এই একটা সিদ্ধান্তই বাংলাদেশের মান মর্যাদা অাজ অনেক ওপরে তুলেছে।
তিনি বলেন, কোনো সরকার যদি ব্যবসা করে তাহলে সে সরকার কখনোই দেশের উন্নয়ন করতে পারে না। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। এজন্য অামাদের দেশেই অালাদা কিছু লোক অাছে। বিশ্বের অনেক দেশ জানতো- বাংলাদেশ মানে ভিক্ষুকের দেশ; ঝড়, বন্যা, খরা অার দুর্যোগের দেশ। এ ছাড়া ভিক্ষুকের জাতি বলেও জানতো। আমরা সে বদনাম ঘুচিয়ে দিয়েছি। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশ। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল। বিশ্বের বড় বড় দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদেরকে চলতে হবে। পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করতে হবে তাহলেই বাংলাদেশ উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্ব দরবারে প্রতিষ্ঠিত হবে।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!