প্রকাশকাল: 16 মার্চ, 2019

নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হত্যাযজ্ঞে বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক : ক্ষোভ-নিন্দার ঝড়

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দু’টি মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় বন্দুকধারীর গুলিতে ৪৯জন নিহতের ঘটনায় বিশ্বজুড়ে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। সেইসাথে ওই নৃশংস হত্যাযজ্ঞের ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন মুসলিম বিশ্বসহ বিভিন্ন দেশের নেতারা। পাশাপাশি হতাহতদের পরিবারের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন তারা।
হামলার ঘটনায় নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরডান বলেছেন, ক্রাইস্টচার্চে যা ঘটেছে, সেটা সন্ত্রাসী হামলা। এখন পর্যন্ত আমরা যা জেনেছি, তাতে এটা পরিষ্কার যে, এ হামলা ছিল সুপরিকল্পিত। তিনি এ হামলাকে নিউজিল্যান্ডের জন্য সবচেয়ে অন্ধকার দিন বলে উল্লেখ করেছেন।
হামলার এ ঘটনায় গভীর শোক ও নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্ডা আরডার্নের কাছে পাঠানো এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক ও নিন্দা প্রকাশ করেন।
হামলার ওই ঘটনায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেছেন, মুসলমানদের বিরুদ্ধে শত্রুতা অলসভাবে দেখছে বিশ্ব। এই মুসলমানদের যে ব্যক্তিগতভাবে হয়রানি করা হত, ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদের হত্যাকাণ্ডের মাধ্যমে সীমান্ত ছাড়িয়ে তা গণহত্যায় রূপ নিয়েছে। তিনি বলেন, এখনই যদি পদক্ষেপ নেওয়া না হয়, তবে আমাদের আরেকটি বিপর্যয়ের খবর শুনতে হবে। মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, আল্লাহ নিশ্চয়ই নিহতদের ক্ষমা করে দেবেন। আহতদের দ্রুত সুস্থ হওয়ার জন্য সহায়তা প্রয়োজন।
সন্ত্রাসী এ হামলার ঘটনায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, সন্ত্রাসবাদ কখনো ধর্ম হতে পারে না। তিনি নিহত ও তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।
এদিকে হামলাকারীকে একজন ডানপন্থী সন্ত্রাসী বলে উল্লেখ করেছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন। তিনি বলেন, একজন সহিংস ডানপন্থীর এ হামলার ঘটনায় আমরা নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। তিনি বলেন, এই হামলার সঙ্গে তাদের দেশের কোনো সম্পর্ক রয়েছে কিনা, অস্ট্রেলিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী তা তদন্ত করে দেখছে।
এদিকে মসজিদে নামাজের জন্য জড়ো হওয়া শান্তিপূর্ণ মানুষকে এলোপাতাড়ি গুলি করে হত্যার ঘটনাকে বেদনাদায়ক ও নৃশংস বলে উল্লেখ করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।
প্রসঙ্গত, শুক্রবার (১৫ মার্চ) ক্রাইস্টচার্চের হাগলি ওভালে নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট খেলতে নামার কথা ছিল সেদেশে অবস্থানকারী বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের। হাগলি ওভালের খুব কাছেই আল নূর মসজিদে আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা দেড়টার দিকে সন্ত্রাসী হামলা হয়। অনুশীলন শেষ করে ওই মসজিদে জুমার নামাজ আদায়ে যান বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা। মসজিদে খেলোয়াড়দের প্রবেশের মুহূর্তে স্থানীয় এক নারী তাদের ভেতরে ঢুকতে নিষেধ করেন। মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার কথা জানান তিনি। ফলে আতঙ্কিত হয়ে স্টেডিয়ামে ফিরে যান খেলোয়াড়রা।

আপনার মতামত দিন

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

error: Content is protected !!