নকলায় কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে সব বিষয়ে পাস করেও ১৫ শিক্ষার্থী ফেল!

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরের নকলা উপজেলার কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীন কম্পিউটার ও তথ্য প্রযুক্তি এবং মৎস্য শিক্ষা ও পুষ্টি শাখার ১৫ পরীক্ষার্থী আবশ্যিক ও ঐচ্ছিক সব বিষয়ে পাস করলেও বোর্ডের ফলাফলে তাদের অকৃতকার্য দেখানো হয়েছে। চলতি বছরের ৬ মে প্রকাশিত এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফলে ওই তথ্য পাওয়া যায়। এতে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের মধ্যে প্রচ- ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অন্যদিকে তার প্রতিকারের জন্য ৯ মে বোর্ডে নম্বরপত্রের মূল কপি পুনরায় পাঠানোর ৫ দিন পরও জানানো হয়নি তাদের ফলাফল।
জানা যায়, নকলা উপজেলার কৃষ্ণপুর দাখিল মাদ্রাসার ৬ জন ও ধুকুড়িয়া আলিম মাদ্রাসার ৯ জন ভোকেশনাল শাখার কম্পিউটার ও তথ্যপ্রযুক্তি এবং মৎস্য শিক্ষা ও পুষ্টি বিষয়ের মোট ১৫ পরীক্ষার্থী সব বিষয়ে কৃতকার্য হলেও নম্বরপত্রে শিক্ষকদের হাতে থাকা বাস্তব প্রশিক্ষণ নম্বর কলামে ‘এফ’ আসায় প্রাপ্ত ফলে তাদের ফেল দেখানো হয়েছে। অভিভাবকদের অভিযোগ, প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও বোর্ড গুরুত্ব দিয়ে কাজ না করায় তাদের এ অবস্থায় পড়তে হয়েছে। শিক্ষক ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের উদাসীনতা বা গাফিলতির জন্য নকলার ১৫ জন শিক্ষার্থীর ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।
এ ব্যাপারে কৃষ্ণপুর দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা রুকনুজ্জামান বলেন, নকলার সব ভোকেশনাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বাস্তব প্রশিক্ষণের নম্বরপত্রের কপি ২৫ এপ্রিল অনলাইনের মাধ্যমে একযোগে বোর্ডে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু দু’টি প্রতিষ্ঠানের নম্বরপত্র মিস হওয়ায় ফলাফলে ফেল এসেছে। তিনি আরও জানান, অনলাইনে নম্বর প্রেরণের সময় সার্ভারে ত্রুটি থাকায় যেসব শিক্ষার্থীর নম্বরপত্র জমা হয়নি, সেসব প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষার্থীর নামের তালিকা ও নম্বরপত্রসহ একটি আবেদন চেয়েছে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। ৯ মে নম্বরপত্রের মূল কপি পুনরায় বোর্ডে পাঠানো হয়েছে।
এ ব্যাপারে নকলা উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুর রশিদ বলেন, নম্বরপত্র প্রেরণের সময় ইন্টারনেট অথবা বোর্ডের ওয়েবসাইটে সমস্যা থাকায় এমনটা হয়ে থাকতে পারে। তবে সংশ্নিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানদের দ্রুত বোর্ডে যোগাযোগ করার জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের পরীক্ষার ফলেও নকলার ৪১ পরীক্ষার্থীর এমন অবস্থা হয়েছিল। পরে তাদের ফল ঠিক করে সংশ্নিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠানো হয়।

আপনার মতামত দিন

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

error: Content is protected !!