সকাল ১১:০৩ | বুধবার | ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং | ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দৃষ্টিনন্দন ‘মে ফ্লাওয়ার’

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : দেখলে মনে হয় পুরো একটি আস্ত ফুল। কিন্তু আসলে কি তাই? না, আসলে তা নয়। এই বৃত্তটি আস্ত একটি ফুল নয়। অনেকগুলো ফুলের সমন্বয় গঠিত অপূর্ব ‘মে ফ্লাওয়ার’। রক্তিম শোভায় উজ্জ্বল হয়ে প্রকৃতিতে দারুণ সৌন্দর্য ছড়ায় সে। সারা বছর মাটির নিচে ঘুমিয়ে থাকে এই ফুল গাছের কাণ্ড। মে মাস এলেই সে কীভাবে যেন টের পেয়ে যায়! তারপর মাটি ভেদ করে মাথা উঁচু করে সেই বৃত্তাকার ফুলটি জানান দেয় তার আপন অস্তিত্ব।
প্রায় ২শ ফুলের সমন্বয়ে গঠিত সেই ‘মে ফ্লাওয়ার’ এর পুষ্পবৃত্ত। একেকটি ফুলের রয়েছে ৬টি পাপড়ি আর ৭টি পুংকেশর। যা ঊর্ধ্বমুখী হয়ে রয়েছে। ফুলটির স্থায়ীত্ব প্রায় এক সপ্তাহকাল। শ্রীমঙ্গল উপজেলার মাস্টারপাড়া আবাসিক এলাকার ‘বিজয় কুটির’ থেকে এ ছবিগুলো তোলা।
এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ও উদ্ভিদ গবেষক ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন বলেন, ইংরেজি নাম Blood Lily। এর বৈজ্ঞানিক নাম Scadoxus multiflorus এবং পরিবার Amarllidaceae। এই গাছের বৈশিষ্ট্য হলো- প্রথমে ফুল আসে; তারপর পাতা আসে। এটার কাণ্ড সারাবছর মাটির নিচে থাকে। ইংরেজি মে মাসেই মাটি ভেদ করে ফুলটি বের হয়। এ Amarllidaceaeপরিবারের কোনো একটা ভ্যারাইটি মে মাসের শুরুতে ফোটে বলে এ জাতীয় ফুলগুলোর নাম ‘মে ফ্লাওয়ার’ রাখা হয়েছে। তবে সবগুলো মে মাসের প্রথম তারিখে ফোটে না।
একটি বৃত্তে অসংখ্য ফুলের আমবেল জাতীয় গোলাকার পুষ্পবিন্যাস। এ বিন্যাসে ২শটির মতো ফুল একত্রে মিশে থাকে। ফুলগুলোর মাথায় হলুদ রঙের পুংকেশর থাকে। এটা ‘পয়জনাস প্লান্ট’ অর্থাৎ, কিছুটা বিষাক্ত জাতীয় উদ্ভিদ। যেসব ছাগল বা ভেড়া এর পাতা খায় তাদের শরীরে কিন্তু বিষক্রিয়া হয়। আফ্রিকাতে এইবৃক্ষটির কস বা রস ‘অ্যারো-পয়জন’ শিকারের তীরের মধ্যে এর কস ব্যবহার এবং মাছ ধরতে ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও ‘ফিসিং-পয়জন’ অর্থাৎ মাছ শিকারের এর ব্যবহার হয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার ঐতিহ্যবাহী ওষুধেও এ বৃক্ষটি ব্যবহার করা হয়।
সাউথ আফ্রিকা, ওয়েস্ট অফ্রিকা, ঘানা, আইভরিকোস্ট, সাইবেরিয়া, মেক্সিকো প্রভৃতি দেশে এই মে ফ্লাওয়ারটির বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে। এটি আমাদের দেশের বনাঞ্চল বা বনভূমির উদ্ভিদ নয়। আমাদের দেশের সৌখিন বৃক্ষপ্রেমীরা এ ফুলটিকে টবে লাগান।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» নালিতাবাড়ীতে ভলিবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

» নালিতাবাড়ীতে দিনব্যাপী তথ্য মেলা অনুষ্ঠিত

» প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে বৃত্তি পেয়েছে ৮২ হাজার ৪২২ জন

» মিসরের সাবেক প্রেসিডেন্ট হোসনি মোবারক আর নেই

» ম্যাচ সেরা হয়েই পাকিস্তানে যাওয়ার ঘোষণা মুশফিকের

» শেরপুরে বাল্যবিবাহ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত

» ঝিনাইগাতীর ৩ ইউনিয়নে বয়স্ক, বিধবা ও অসচ্ছল ভাতাভোগী উন্মুক্ত বাছাই

» কর্মচারীদের ৩ দিনের পূর্ণ কর্মবিরতিতে কমিশনার ও কালেক্টরেট অফিস অচল

» নকলায় সুতি নদীর অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ অভিযান

» পিলখানা ট্রাজেডিতে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা

» পিলখানা হত্যাকাণ্ড দিবস আজ

» দিল্লিতে আজও সিএএবিরোধী বিক্ষোভ, নিহত বেড়ে ৭

» শেরপুরে ছাত্র–শিক্ষক সম্প্রীতি সভা অনুষ্ঠিত

» ইনিংস ব্যবধানে জিতল টাইগাররা

» ছেলেকে ডাবল সেঞ্চুরি উৎসর্গ করলেন মুশফিক

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  সকাল ১১:০৩ | বুধবার | ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং | ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

দৃষ্টিনন্দন ‘মে ফ্লাওয়ার’

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : দেখলে মনে হয় পুরো একটি আস্ত ফুল। কিন্তু আসলে কি তাই? না, আসলে তা নয়। এই বৃত্তটি আস্ত একটি ফুল নয়। অনেকগুলো ফুলের সমন্বয় গঠিত অপূর্ব ‘মে ফ্লাওয়ার’। রক্তিম শোভায় উজ্জ্বল হয়ে প্রকৃতিতে দারুণ সৌন্দর্য ছড়ায় সে। সারা বছর মাটির নিচে ঘুমিয়ে থাকে এই ফুল গাছের কাণ্ড। মে মাস এলেই সে কীভাবে যেন টের পেয়ে যায়! তারপর মাটি ভেদ করে মাথা উঁচু করে সেই বৃত্তাকার ফুলটি জানান দেয় তার আপন অস্তিত্ব।
প্রায় ২শ ফুলের সমন্বয়ে গঠিত সেই ‘মে ফ্লাওয়ার’ এর পুষ্পবৃত্ত। একেকটি ফুলের রয়েছে ৬টি পাপড়ি আর ৭টি পুংকেশর। যা ঊর্ধ্বমুখী হয়ে রয়েছে। ফুলটির স্থায়ীত্ব প্রায় এক সপ্তাহকাল। শ্রীমঙ্গল উপজেলার মাস্টারপাড়া আবাসিক এলাকার ‘বিজয় কুটির’ থেকে এ ছবিগুলো তোলা।
এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ও উদ্ভিদ গবেষক ড. মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন বলেন, ইংরেজি নাম Blood Lily। এর বৈজ্ঞানিক নাম Scadoxus multiflorus এবং পরিবার Amarllidaceae। এই গাছের বৈশিষ্ট্য হলো- প্রথমে ফুল আসে; তারপর পাতা আসে। এটার কাণ্ড সারাবছর মাটির নিচে থাকে। ইংরেজি মে মাসেই মাটি ভেদ করে ফুলটি বের হয়। এ Amarllidaceaeপরিবারের কোনো একটা ভ্যারাইটি মে মাসের শুরুতে ফোটে বলে এ জাতীয় ফুলগুলোর নাম ‘মে ফ্লাওয়ার’ রাখা হয়েছে। তবে সবগুলো মে মাসের প্রথম তারিখে ফোটে না।
একটি বৃত্তে অসংখ্য ফুলের আমবেল জাতীয় গোলাকার পুষ্পবিন্যাস। এ বিন্যাসে ২শটির মতো ফুল একত্রে মিশে থাকে। ফুলগুলোর মাথায় হলুদ রঙের পুংকেশর থাকে। এটা ‘পয়জনাস প্লান্ট’ অর্থাৎ, কিছুটা বিষাক্ত জাতীয় উদ্ভিদ। যেসব ছাগল বা ভেড়া এর পাতা খায় তাদের শরীরে কিন্তু বিষক্রিয়া হয়। আফ্রিকাতে এইবৃক্ষটির কস বা রস ‘অ্যারো-পয়জন’ শিকারের তীরের মধ্যে এর কস ব্যবহার এবং মাছ ধরতে ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও ‘ফিসিং-পয়জন’ অর্থাৎ মাছ শিকারের এর ব্যবহার হয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকার ঐতিহ্যবাহী ওষুধেও এ বৃক্ষটি ব্যবহার করা হয়।
সাউথ আফ্রিকা, ওয়েস্ট অফ্রিকা, ঘানা, আইভরিকোস্ট, সাইবেরিয়া, মেক্সিকো প্রভৃতি দেশে এই মে ফ্লাওয়ারটির বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে। এটি আমাদের দেশের বনাঞ্চল বা বনভূমির উদ্ভিদ নয়। আমাদের দেশের সৌখিন বৃক্ষপ্রেমীরা এ ফুলটিকে টবে লাগান।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!