ভোর ৫:৩৫ | বুধবার | ২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইগাতী সীমান্তের পাহাড়ি এলাকায় শুরু হয়েছে বন্যহাতির তাণ্ডব

খোরশেদ আলম, স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইগাতী ॥ শেরপুরের সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী সীমান্তের পাহাড়ি এলাকাগুলোতে আবারও শুরু হয়েছে বন্যহাতির তাণ্ডব। ফলে নিদ্রাহীন রাত কাটতে হচ্ছে কৃষকদের। এসব পাহাড়ি গ্রামগুলো হচ্ছে, তাওয়াকুচা, গুরুচরনদুধনই, পানবর, ছোটগজনী, বাকাকুড়া, বড়গজনী, গান্ধিগাঁও, হালচাটি, নওকুচি, রাংটিয়া, গোমড়া, সন্ধ্যাকুড়া ও গারোকোনা।

img-add

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ১৯৯৬ সাল থেকে ওইসব পাহাড়ি গ্রামগুলোতে শুরু হয় বন্যহাতির তাণ্ডব। বন্যহাতি দল দিনে পাহাড়ের গভীর অরণ্যে আশ্রয় নিচ্ছে। আর সন্ধ্যা নেমে আসার সাথে সাথে খাদ্যের সন্ধানে বন্যহাতির দল নেমে আসছে লোকালয়ে। বন্যহাতির দল কাঁচা ঘর-বাড়ি গাছপালা, বাঁশঝাড়, কলা ও শাক-সবজি বাগান, কৃষকদের ধানের গোলা ও ক্ষেতের কাচা পাকা ধান খেয়ে ও পায়ে পিষিয়ে দুমড়ে-মুচড়ে একাকার করে চলেছে। গত দুই যুগ ধরে বন্য হাতির তাণ্ডবে ওইসব পাহাড়ি গ্রামগুলোতে ঘর-বাড়ি গাছপালা, ক্ষেতের ফসল ও জানমালের ও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। উপুর্যপুরি বন্যহাতির তান্ডবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পাহাড়ি গ্রামবাসিরা। বন্যহাতির কবল থেকে জানমাল ও ক্ষেতের ফসল রক্ষার্থে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে কৃষকরা। ঢাকঢোল, ফটকা-ফুটিয়ে মশাল জ্বালিয়ে হাতি তাড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্ত যতই হাতি তাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে ততই বন্যহাতির দল তেড়ে আসছে লোকালয়ে। তাওয়াকুচা গ্রামের ইউপি সদস্য হযরত আলী, নওকুচি গ্রামের গোলাপ হোসেন, আব্দুর রশিদ, হালচাটি গ্রামের সুরেন্দ্র কোচসহ স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, ক্ষেতের ধান পেকে উঠার সাথে সাথে বন্যহাতির তান্ডব বৃদ্ধি পায়। কাংশা ইউনিয়ন পরিষেদের চেয়ারম্যান জহুরুল হক জানান, বর্তমানে তার ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে প্রায় প্রতিরাতেই হানা দিচ্ছে বন্যহাতির দল। ক্ষেতের পাঁকা ধান খেয়ে দুমড়ে মুচড়ে সাবার করে দিচ্ছে। ফলে এলাকার কৃষকদের চোখে এখন ঘুম নেই।বিপর্যস্ত হয়ে পরেছে পাহাড়ি গ্রামবাসীরা। রাত কাটছে হাতি আতংকে।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শ্রীবরদীতে বাবু হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

» শ্রীবরদীতে ওয়ার্ল্ড ভিশনের শীতকালীন সবজি বীজ বিতরণ

» বিজ্ঞানী হত্যা দূর-নিয়ন্ত্রণ যন্ত্র ব্যবহার করে : ইরান

» গুচ্ছ পদ্ধতিতেই হবে সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা

» তৃতীয় সাবমেরিন ক্যাবল প্রকল্প অনুমোদন

» ঝিনাইগাতী থানার ওসির উদ্যোগে করোনার দ্বিতীয় ধাপে মাস্ক বিতরণ

» শেরপুরে মেয়র মনোনয়নপ্রত্যাশী আ’লীগ নেতা আধারের গণসংযোগ

» শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস

» শেরপুর মুক্তিযোদ্ধা দিবস উদযাপিত : মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে কম্বল বিতরণ

» সর্বোচ্চ ছাড়ে চিকিৎসা পাবেন চলচ্চিত্র শিল্পীরা

» যাবজ্জীবন মানে ৩০ বছর, কিন্তু…..

» উচ্চ মাধ্যমিকেও থাকছে না কোনো বিভাগ, শিক্ষা হবে কর্মমুখী

» মোঃ রাবিউল ইসলাম’র পদ্য ‘কর্মজীবী নারী’

» নকলায় গরু বোঝাই ট্রাক খাদে পড়ে হতাহত ২, মারা গেছে ১৩টি গরু

» শেরপুরে সরকারি খরচে আইনগত সহায়তা প্রদান বিষয়ক প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানী

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  ভোর ৫:৩৫ | বুধবার | ২রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ঝিনাইগাতী সীমান্তের পাহাড়ি এলাকায় শুরু হয়েছে বন্যহাতির তাণ্ডব

খোরশেদ আলম, স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইগাতী ॥ শেরপুরের সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী সীমান্তের পাহাড়ি এলাকাগুলোতে আবারও শুরু হয়েছে বন্যহাতির তাণ্ডব। ফলে নিদ্রাহীন রাত কাটতে হচ্ছে কৃষকদের। এসব পাহাড়ি গ্রামগুলো হচ্ছে, তাওয়াকুচা, গুরুচরনদুধনই, পানবর, ছোটগজনী, বাকাকুড়া, বড়গজনী, গান্ধিগাঁও, হালচাটি, নওকুচি, রাংটিয়া, গোমড়া, সন্ধ্যাকুড়া ও গারোকোনা।

img-add

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ১৯৯৬ সাল থেকে ওইসব পাহাড়ি গ্রামগুলোতে শুরু হয় বন্যহাতির তাণ্ডব। বন্যহাতি দল দিনে পাহাড়ের গভীর অরণ্যে আশ্রয় নিচ্ছে। আর সন্ধ্যা নেমে আসার সাথে সাথে খাদ্যের সন্ধানে বন্যহাতির দল নেমে আসছে লোকালয়ে। বন্যহাতির দল কাঁচা ঘর-বাড়ি গাছপালা, বাঁশঝাড়, কলা ও শাক-সবজি বাগান, কৃষকদের ধানের গোলা ও ক্ষেতের কাচা পাকা ধান খেয়ে ও পায়ে পিষিয়ে দুমড়ে-মুচড়ে একাকার করে চলেছে। গত দুই যুগ ধরে বন্য হাতির তাণ্ডবে ওইসব পাহাড়ি গ্রামগুলোতে ঘর-বাড়ি গাছপালা, ক্ষেতের ফসল ও জানমালের ও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি সাধিত হয়েছে। উপুর্যপুরি বন্যহাতির তান্ডবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে পাহাড়ি গ্রামবাসিরা। বন্যহাতির কবল থেকে জানমাল ও ক্ষেতের ফসল রক্ষার্থে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে কৃষকরা। ঢাকঢোল, ফটকা-ফুটিয়ে মশাল জ্বালিয়ে হাতি তাড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। কিন্ত যতই হাতি তাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে ততই বন্যহাতির দল তেড়ে আসছে লোকালয়ে। তাওয়াকুচা গ্রামের ইউপি সদস্য হযরত আলী, নওকুচি গ্রামের গোলাপ হোসেন, আব্দুর রশিদ, হালচাটি গ্রামের সুরেন্দ্র কোচসহ স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, ক্ষেতের ধান পেকে উঠার সাথে সাথে বন্যহাতির তান্ডব বৃদ্ধি পায়। কাংশা ইউনিয়ন পরিষেদের চেয়ারম্যান জহুরুল হক জানান, বর্তমানে তার ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে প্রায় প্রতিরাতেই হানা দিচ্ছে বন্যহাতির দল। ক্ষেতের পাঁকা ধান খেয়ে দুমড়ে মুচড়ে সাবার করে দিচ্ছে। ফলে এলাকার কৃষকদের চোখে এখন ঘুম নেই।বিপর্যস্ত হয়ে পরেছে পাহাড়ি গ্রামবাসীরা। রাত কাটছে হাতি আতংকে।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!