ভোর ৫:১৫ | রবিবার | ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং | ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ছোট্ট ঘর থেকেই বিশ্বজয় ময়মনসিংহের ছেলে রাকিবুলের

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার রূপসী ইউপির বাশাটি গ্রামের টিনের ছোট্ট একটি ঘরে জন্ম হয় রাকিবুলের। আর ওই ছোট্ট ঘর থেকে বেরিয়েই নিজের দেশের নাম ইতিহাসের পাতায় লেখালেন অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের এ খেলোয়াড়। তাকে নিয়ে এখন সর্বত্রই বইছে আলোচনার ঝড়। ১৯ দলের ওই জয়ের পর মিষ্টি বিতরণসহ আনন্দ মিছিল করেছে গ্রামবাসী।

img-add

গত ২ দিনে বিশ্বব্যাপী আলোচিত একটি নাম রাকিবুল হাসান। গাড়িচালক বাবার একমাত্র ছেলের ক্রিকেটের প্রতি দুর্বলতা এতদিন প্রকাশ পেয়েছিল শুধুমাত্র সমবয়সীদের মাঝে। এরপর সদ্য সমাপ্ত টুর্নামেন্টের মাধ্যমে পুরো গ্রামবাসী জানতে পারে বিশ্বের দ্বারে বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন তাদের ছেলেটি।

রাকিবুলের গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, টিনের ছোট্ট পুরনো ঘরে কেউ না থাকায় রাকিবুলের ফুফা কামাল হোসেন পরিবার নিয়ে থাকেন। এ সময় রাকিবুলের ফুফু রোখসানা খাতুন বলেন, রাকিবুল বেশি পড়তে চাইত না। সুযোগ পেলেই ক্রিকেট খেলায় লেগে যেত। তবে দেশের মুখ উজ্জ্বল করায় আমরা খুবই আনন্দিত। গ্রামের বিভিন্ন বয়সী মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাকিবুল যে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলছেন, এ খবর টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই জানে গ্রামবাসী। বিশেষ করে কিশোররা বেশি খবর রেখেছে। বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর থেকেই গ্রামের মানুষ রূপসী বাজারে গিয়ে রাকিবুলের খেলা দেখেছে।

তারা জানায়, রাতে বাড়ির বাইরে যাওয়া নিষেধ হলেও পরিবারের অনুমতি নিয়ে রোববার রাতে রূপসী বাজারে গিয়ে খেলা দেখেছে। টানা উত্তেজনার অবসান ঘটিয়ে বিশ্বজয়ের শেষ রানটা আসে রাকিবুলের ব্যাট থেকে। ওই আনন্দের ঘোর কাটছেই না তাদের। রাতেই গ্রামের মানুষ রাকিবুলের দলের জয়ে আনন্দ মিছিল করেছে।

গ্রামের মানুষের এ আনন্দকে আরও বাড়িয়ে দিতে চান রাকিবুলের বাবা শহীদুল ইসলাম। সোমবার দুপুরে মুঠোফোনে কথা হয় তার সঙ্গে। তিনি বলেন, ছেলে দেশে এলেই গ্রামে আসবো। গ্রামের মানুষদের সঙ্গে এ আনন্দ ভাগাভাগি করে নিবো।

নুর্ধ-১৯ দলের নতুন চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ দলের অন্যতম খেলোয়াড় ময়মনসিংহের ফুলপুরের কুড়িপাড়া গ্রামের রাকিবুল হাসানের বাবা শহীদুল ইসলাম শহীদ বলেন, অভাবের সংসারে নিজে লেখাপড়া করতে পারিনি, তাই ইচ্ছে ছিল ছেলে (রাকিবুল হাসান) ভাল লেখাপড়া করিয়ে ভাল চাকুরি করে সংসারের অভাব দূর করবে। কিন্তু সে স্কুলের ক্লাশ ফাঁকি দিয়ে খেলার মাঠে গিয়ে ক্রিকেট খেলতো। ছোট থেকেই রাকিবুল হাসান ছিল খু্ব মেধাবী। তাই স্বপ্ন ছিল ছেলেকে বিসিএস অফিসার বানাবো। তাই, ক্লাস ফাঁকি দিয়ে ব্যাট বল নিয়ে মাঠেই বেশি সময় দিয়েছে। এ জন্য ছেলেকে অনেক বকেছি, মারধরও করেছি। কিন্তু, সে লেখাপড়ার চাইতে ক্রিকেটেই বেশি মনোযোগ ছিল।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» বইপ্রেমী-লেখকদের পদভারে মুখরিত শেরপুরের ডিসি উদ্যান

» মুজিববর্ষে আসছে স্বর্ণ ও রৌপ্য মুদ্রা, সঙ্গে ২শ টাকার নোট

» শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ সমৃদ্ধ অর্থনীতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে : অর্থমন্ত্রী

» শেরপুর শহীদ স্মৃতিস্তম্ভের সুরক্ষার ব্যবস্থা করা হোক ॥ মানিক দত্ত

» ম্যাচের সেঞ্চুরি পূর্ণ করল বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে

» হাড় শক্তিশালী করে যেসব খাবার

» করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৩৬০

» নাঈমের ঘূর্ণিতে স্বস্তি ফিরল বাংলাদেশ শিবিরে

» ‘বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করতে কাজ করছে সরকার’

» শেরপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে আলোচনা সভা ও ভাষা সৈনিক পরিবারের সংবর্ধনা

» শেরপুরে ৯ দিনব্যাপী বই মেলার উদ্বোধন

» নকলায় মোটরসাইকেলের বেপরোয়া গতিতে প্রাণ গেল দুই কিশোরের

» শেরপুরে বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ

» বসলো ২৫তম স্প্যান : পদ্মা সেতুর পৌনে ৪ কিলোমিটার দৃশ্যমান

» ঝিনাইগাতীতে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  ভোর ৫:১৫ | রবিবার | ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং | ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ছোট্ট ঘর থেকেই বিশ্বজয় ময়মনসিংহের ছেলে রাকিবুলের

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার রূপসী ইউপির বাশাটি গ্রামের টিনের ছোট্ট একটি ঘরে জন্ম হয় রাকিবুলের। আর ওই ছোট্ট ঘর থেকে বেরিয়েই নিজের দেশের নাম ইতিহাসের পাতায় লেখালেন অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলের এ খেলোয়াড়। তাকে নিয়ে এখন সর্বত্রই বইছে আলোচনার ঝড়। ১৯ দলের ওই জয়ের পর মিষ্টি বিতরণসহ আনন্দ মিছিল করেছে গ্রামবাসী।

img-add

গত ২ দিনে বিশ্বব্যাপী আলোচিত একটি নাম রাকিবুল হাসান। গাড়িচালক বাবার একমাত্র ছেলের ক্রিকেটের প্রতি দুর্বলতা এতদিন প্রকাশ পেয়েছিল শুধুমাত্র সমবয়সীদের মাঝে। এরপর সদ্য সমাপ্ত টুর্নামেন্টের মাধ্যমে পুরো গ্রামবাসী জানতে পারে বিশ্বের দ্বারে বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন তাদের ছেলেটি।

রাকিবুলের গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, টিনের ছোট্ট পুরনো ঘরে কেউ না থাকায় রাকিবুলের ফুফা কামাল হোসেন পরিবার নিয়ে থাকেন। এ সময় রাকিবুলের ফুফু রোখসানা খাতুন বলেন, রাকিবুল বেশি পড়তে চাইত না। সুযোগ পেলেই ক্রিকেট খেলায় লেগে যেত। তবে দেশের মুখ উজ্জ্বল করায় আমরা খুবই আনন্দিত। গ্রামের বিভিন্ন বয়সী মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রাকিবুল যে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলছেন, এ খবর টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই জানে গ্রামবাসী। বিশেষ করে কিশোররা বেশি খবর রেখেছে। বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর থেকেই গ্রামের মানুষ রূপসী বাজারে গিয়ে রাকিবুলের খেলা দেখেছে।

তারা জানায়, রাতে বাড়ির বাইরে যাওয়া নিষেধ হলেও পরিবারের অনুমতি নিয়ে রোববার রাতে রূপসী বাজারে গিয়ে খেলা দেখেছে। টানা উত্তেজনার অবসান ঘটিয়ে বিশ্বজয়ের শেষ রানটা আসে রাকিবুলের ব্যাট থেকে। ওই আনন্দের ঘোর কাটছেই না তাদের। রাতেই গ্রামের মানুষ রাকিবুলের দলের জয়ে আনন্দ মিছিল করেছে।

গ্রামের মানুষের এ আনন্দকে আরও বাড়িয়ে দিতে চান রাকিবুলের বাবা শহীদুল ইসলাম। সোমবার দুপুরে মুঠোফোনে কথা হয় তার সঙ্গে। তিনি বলেন, ছেলে দেশে এলেই গ্রামে আসবো। গ্রামের মানুষদের সঙ্গে এ আনন্দ ভাগাভাগি করে নিবো।

নুর্ধ-১৯ দলের নতুন চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ দলের অন্যতম খেলোয়াড় ময়মনসিংহের ফুলপুরের কুড়িপাড়া গ্রামের রাকিবুল হাসানের বাবা শহীদুল ইসলাম শহীদ বলেন, অভাবের সংসারে নিজে লেখাপড়া করতে পারিনি, তাই ইচ্ছে ছিল ছেলে (রাকিবুল হাসান) ভাল লেখাপড়া করিয়ে ভাল চাকুরি করে সংসারের অভাব দূর করবে। কিন্তু সে স্কুলের ক্লাশ ফাঁকি দিয়ে খেলার মাঠে গিয়ে ক্রিকেট খেলতো। ছোট থেকেই রাকিবুল হাসান ছিল খু্ব মেধাবী। তাই স্বপ্ন ছিল ছেলেকে বিসিএস অফিসার বানাবো। তাই, ক্লাস ফাঁকি দিয়ে ব্যাট বল নিয়ে মাঠেই বেশি সময় দিয়েছে। এ জন্য ছেলেকে অনেক বকেছি, মারধরও করেছি। কিন্তু, সে লেখাপড়ার চাইতে ক্রিকেটেই বেশি মনোযোগ ছিল।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!