বিকাল ৫:৪৪ | বুধবার | ২৭শে মে, ২০২০ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

করোনা প্রতিরোধে শেরপুরে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালাচ্ছে পুলিশ

মইনুল হোসেন প্লাবন, স্টাফ রিপোর্টার ॥ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে শেরপুরে এখন জেলা শহর ও উপজেলা সদরগুলোর বাইরেও প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে কাজ করছে পুলিশ। পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএমের নির্দেশনায় মাইকিং ও লিফলেট প্রচারণার পাশাপাশি তারা হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বিদেশফেরতদের খোঁজ-খবর ও তদারকি এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে প্রতিদিন গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় ছুটে যাচ্ছেন। কোন কোন এলাকায় প্রচারণা ও তদারকিতে অংশ নিচ্ছেন স্বয়ং পুলিশ সুপার।

img-add

জানা যায়, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে দেশের অন্যান্য এলাকার মতো শেরপুরেও জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থান নেয় জেলা পুলিশ। এজন্য জনসচেতনতা বাড়াতে প্রথমেই জেলায় ব্যাপক লিফলেট বিতরণ এবং জেলা ও উপজেলা সদরে মাইকিং প্রচারণা চালানো হয়। আর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে, আদালত অঙ্গনসহ কয়েক জায়গায় বসানো হয় সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার বেসিন। এরপর ক্রমেই বাড়তে থাকে তাদের কাজের পরিধি। ওই অবস্থায় জেলা থেকে উপজেলাসহ তৃণমূল পর্যায়ের কাজের সমন্বয় বাড়াতে সমগ্র জেলাসহ বিশেষভাবে জেলা সদরে পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, শ্রীবরদীতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, নকলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আমিনুল ইসলাম, ঝিনাইগাতীতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মাহমুদুল হাসান ফেরদৌস ও নালিতাবাড়ীতে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলমকে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। এরপর থেকেই এলাকাভিত্তিক দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ স্ব-স্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ১০ দিনের সরকারি ছুটিতে সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধের পাশাপাশি দূরপাল্লার যানবাহন ও দোকানপাট বন্ধে অঘোষিত লকডাউন কার্যকরে শহরগুলোতে যানবাহন ও জনযাতায়াত নিয়ন্ত্রণে শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা ও মোড়গুলোতে বিশেষ অবস্থান নেয় পুলিশ। বাড়ানো হয় তৎপরতা। এছাড়া শহরের ঔষধের দোকান ও নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীর দোকানের সামনে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে গোল বৃত্ত আঁকার কর্মসূচিও গ্রহণ করে। পরিবর্তিত অবস্থায় তাদের সেই কার্যক্রম এখন শহর থেকে অনেকটাই গ্রামমুখী। প্রায় প্রতিদিনই পুলিশ সুপারসহ এলাকাভিত্তিক দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা শহরের প্রতি নজরদারি রেখেও গ্রামাঞ্চলের হাটবাজারসহ জনবহুল এলাকাগুলোতে ছুটে যাচ্ছেন। নানা সচেতনতামূলক প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন।
জেলা পুলিশের ওই সার্বিক কর্মকাণ্ড মাঠ পর্যায়ে তদারকি করতে ২৯ মার্চ রবিবার বিকেলে শ্রীবরদী পরিদর্শন করেছেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম। এদিন তিনি উপজেলা সদরসহ কুড়িকাহনীয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন হাট-বাজার ও জনবহুল এলাকায় নিজে জনসচেতনতামূলক প্রচারণায় অংশ নেন এবং করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে এলাকাবাসীর প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।
এদিকে ২৯ মার্চ রবিবার সকালে শেরপুর পুলিশ লাইন্সে পুলিশ সদস্যদের শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপসহ ওই এলাকার পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিতকরণ ও হাসপাতাল ব্যবস্থাপনার প্রতি বিশেষ নজরদারি আরোপ করা হয়েছে। পুলিশ সুপারের উপস্থিতিতে হ্যান্ড হেলথ ইনফ্রারেড থার্মোমিটারের মাধ্যমে পুলিশ সদস্যদের শরীরের তাপমাত্রা নিরূপণ করেন সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোবারক হোসেন। ওইসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেনসহ পুলিশের অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এ ব্যাপারে শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম শ্যামলবাংলা২৪ডটকমকে বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে জেলা পুলিশের তরফ থেকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থান নেওয়া হয়েছে। এজন্য বিদেশ ফেরত এবং রাজধানী ঢাকা ফেরত লোকজনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখতেও পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া জনসাধারণকে সচেতন করার পাশাপাশি অন্যান্য তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। জেলা শহর ও উপজেলা সদরগুলোর পাশাপাশি এখন প্রতিটি উপজেলার হাটবাজারসহ প্রত্যন্ত এলাকায় ওইসব কার্যক্রম চলছে।

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শেরপুরে প্রেমের অভিনয়ে মোবাইল ফোনে স্কুলছাত্রীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ : ধর্ষকসহ গ্রেফতার ৩

» ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা বেগমের মৃত্যু

» এবার বিয়ে বিতর্কে নোবেল

» ভারত মহাসাগরের টেকটনিক প্লেট ভেঙে দু’টুকরা, ভয়াবহ ভূমিকম্পের আশঙ্কা

» সিরাজগঞ্জে নৌকাডুবি, শিশুসহ ৩ জনের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ ৩০

» মালদ্বীপ থেকে ফিরলেন ১২০০ জন

» ঈদের দিনও বিষোদগার থেকে বেরুতে পারেনি বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

» ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত ১১৬৬, মৃত্যু ২১

» করোনায় নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যু

» ঝিনাইগাতীতে কালবৈশাখীর ছোবলে ঘরবাড়ি ও সবজি ক্ষেতের ব্যাপক ক্ষতি

» শেরপুরে ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটূক্তি করায় কলেজ শিক্ষার্থী গ্রেফতার

» শেরপুরে করোনা পরিস্থিতে মসজিদে মসজিদে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায়

» ভিন্ন এক আবহে অন্যরকম ঈদ উদযাপন

» সম্প্রীতির শিক্ষা ছড়িয়ে পড়ুক, গড়ে উঠুক সমৃদ্ধ দেশ : রাষ্ট্রপতি

» শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদ পালন করুন : কাদের

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  বিকাল ৫:৪৪ | বুধবার | ২৭শে মে, ২০২০ ইং | ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

করোনা প্রতিরোধে শেরপুরে প্রত্যন্ত অঞ্চলেও সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালাচ্ছে পুলিশ

মইনুল হোসেন প্লাবন, স্টাফ রিপোর্টার ॥ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে শেরপুরে এখন জেলা শহর ও উপজেলা সদরগুলোর বাইরেও প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে কাজ করছে পুলিশ। পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএমের নির্দেশনায় মাইকিং ও লিফলেট প্রচারণার পাশাপাশি তারা হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা বিদেশফেরতদের খোঁজ-খবর ও তদারকি এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে প্রতিদিন গ্রামাঞ্চলের হাট-বাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় ছুটে যাচ্ছেন। কোন কোন এলাকায় প্রচারণা ও তদারকিতে অংশ নিচ্ছেন স্বয়ং পুলিশ সুপার।

img-add

জানা যায়, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে দেশের অন্যান্য এলাকার মতো শেরপুরেও জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থান নেয় জেলা পুলিশ। এজন্য জনসচেতনতা বাড়াতে প্রথমেই জেলায় ব্যাপক লিফলেট বিতরণ এবং জেলা ও উপজেলা সদরে মাইকিং প্রচারণা চালানো হয়। আর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে, আদালত অঙ্গনসহ কয়েক জায়গায় বসানো হয় সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার বেসিন। এরপর ক্রমেই বাড়তে থাকে তাদের কাজের পরিধি। ওই অবস্থায় জেলা থেকে উপজেলাসহ তৃণমূল পর্যায়ের কাজের সমন্বয় বাড়াতে সমগ্র জেলাসহ বিশেষভাবে জেলা সদরে পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম, শ্রীবরদীতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, নকলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আমিনুল ইসলাম, ঝিনাইগাতীতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মাহমুদুল হাসান ফেরদৌস ও নালিতাবাড়ীতে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর আলমকে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। এরপর থেকেই এলাকাভিত্তিক দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ স্ব-স্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ১০ দিনের সরকারি ছুটিতে সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধের পাশাপাশি দূরপাল্লার যানবাহন ও দোকানপাট বন্ধে অঘোষিত লকডাউন কার্যকরে শহরগুলোতে যানবাহন ও জনযাতায়াত নিয়ন্ত্রণে শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা ও মোড়গুলোতে বিশেষ অবস্থান নেয় পুলিশ। বাড়ানো হয় তৎপরতা। এছাড়া শহরের ঔষধের দোকান ও নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীর দোকানের সামনে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে গোল বৃত্ত আঁকার কর্মসূচিও গ্রহণ করে। পরিবর্তিত অবস্থায় তাদের সেই কার্যক্রম এখন শহর থেকে অনেকটাই গ্রামমুখী। প্রায় প্রতিদিনই পুলিশ সুপারসহ এলাকাভিত্তিক দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা শহরের প্রতি নজরদারি রেখেও গ্রামাঞ্চলের হাটবাজারসহ জনবহুল এলাকাগুলোতে ছুটে যাচ্ছেন। নানা সচেতনতামূলক প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন।
জেলা পুলিশের ওই সার্বিক কর্মকাণ্ড মাঠ পর্যায়ে তদারকি করতে ২৯ মার্চ রবিবার বিকেলে শ্রীবরদী পরিদর্শন করেছেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম। এদিন তিনি উপজেলা সদরসহ কুড়িকাহনীয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন হাট-বাজার ও জনবহুল এলাকায় নিজে জনসচেতনতামূলক প্রচারণায় অংশ নেন এবং করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে এলাকাবাসীর প্রতি উদাত্ত আহবান জানান।
এদিকে ২৯ মার্চ রবিবার সকালে শেরপুর পুলিশ লাইন্সে পুলিশ সদস্যদের শরীরের তাপমাত্রা পরিমাপসহ ওই এলাকার পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিতকরণ ও হাসপাতাল ব্যবস্থাপনার প্রতি বিশেষ নজরদারি আরোপ করা হয়েছে। পুলিশ সুপারের উপস্থিতিতে হ্যান্ড হেলথ ইনফ্রারেড থার্মোমিটারের মাধ্যমে পুলিশ সদস্যদের শরীরের তাপমাত্রা নিরূপণ করেন সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোবারক হোসেন। ওইসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেনসহ পুলিশের অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
এ ব্যাপারে শেরপুরের পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম শ্যামলবাংলা২৪ডটকমকে বলেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে জেলা পুলিশের তরফ থেকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থান নেওয়া হয়েছে। এজন্য বিদেশ ফেরত এবং রাজধানী ঢাকা ফেরত লোকজনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখতেও পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া জনসাধারণকে সচেতন করার পাশাপাশি অন্যান্য তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। জেলা শহর ও উপজেলা সদরগুলোর পাশাপাশি এখন প্রতিটি উপজেলার হাটবাজারসহ প্রত্যন্ত এলাকায় ওইসব কার্যক্রম চলছে।

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!