প্রকাশকাল: 19 জুন, 2019

এইচ পি রুবেল খানের ‘প্রিয় নেতা’

তোমার কাছে চিঠি লিখব লিখব বলেই চলে যাচ্ছে আমার বেলা-অবেলা
অতৃপ্ত মনে তোমার কথা ভাবতে ভাবতেই লিখতে বসলাম তোমার কথা
কুরুয়ার বাড়িতে ছোট্ট ঘরে কোন রকমে কুচকাচ করে থাকা হতো দুটি রুমে
খরের চালা,বাঁশের বেড়া,বৈদ্যুতিক লাইন তখনো আসেনি-নারীর প্রেমে পিদিম চুমে।
পড়ার টেবিলের ঠিক সামনের বাঁশের খুঁটিতে ঝুলানো ছিল তোমার ছবি
বাবার মুখে রোজ রোজ শুনতাম, পৃথিবীর আলোকপাত কবি-আর তুমি নাকি বাংলাদেশের রবি।
বাবার মুখে সকাল-সন্ধ্যায় শুনতাম রেসকোর্স ময়দানের তোমার বজ্রকণ্ঠের ভাষণ-
তোমার ছবি দেখতে দেখতে ভাষণ শুনতে শুনতে তোমাকে পড়তে পড়তে আমার মনে বসিয়েছি তোমার আসন।
যে বাংলাদেশের জন্ম দিলে তুমি-তেমাকে স্বপরিবারে হত্যা করল হায়েনারা
ধানমন্ডির ৩২ নম্বর বাসাতে নির্মম হত্যাযজ্ঞ লেখা হলো
কাউকে ছাড়েনি পাষাণেরা-ছোট্ট শিশু রাসেলকেও না।
এটা শুনার পর নিজেকে বাঙালি ভাবতে ঘৃন্না আসে
যে জন্ম দিল স্বাধীন বাংলা, স্বপরিবারে করা হলো হত্যা
রাসেল কচি কণ্ঠে কেঁদে কেঁদে লুটিয়ে পড়েছিল পায়ে
তাকেও বাঁচতে দেয়নি হায়েনারা-বিঁধেনি কান্নার মায়া হায়েনার গায়ে।
কথাগুলো বলতে বলতেই বাবা চোখের পানি মুছে ঘাড়ের গামছা দিয়ে
আমিও কেঁদে ফেলি বাবার অমন কান্না দেখে।
তোমার জন্মদিন ১৭ই মার্চ আজ আমরা পেয়েছি ছুটির দিন হিসেবে
আনন্দ-আহ্লাদে কাটানোর পর রাতে সবাই কাঁদি তোমার কথা ভেবে
‘তুমি শুধু শেখ বাড়ির খোকা নও
তুমি শুধু টুঙ্গিপাড়ার ছেলে নও,
তুমি যে বাংলাদেশের খোকা
তুমি যে বাংলাদেশের ছেলে।’
জানিনা এক’শ বছরের মধ্যে এমন কোন নেতার নাম মুখে নিতে পারব কিনা
যে হবে সৎ,নির্ভীক,অন্যায়ের প্রতিবাদী, সাহসী আর তোমার মতো বজ্রকণ্ঠের অধিকারী।
প্রিয় নেতা….
হায়েনারা তোমাকে হত্যা করতে পারেনি
প্রতিটি ঘরে ঘরে তোমাকে জন্ম দিয়ে গেছো
প্রতিটি অনুষ্ঠান,মিটিং,মিছিলে তোমাকে রেখে গেছো
তোমার দেশরত্ন কন্যা শেখ হাসিনার মাঝে তুমি নিজেকে রেখে গেছো
একটা ত্যাজের জন্ম দিয়ে গেছিলে কন্যার ভেতরে
তাইতো,তাইতো তোমাকে তোমার কন্যার মাঝে দেখতে পাই,
আর তোমার কন্যাকে দেখেই যে তোমাকে দেখার স্বাদ মিটাই।

আপনার মতামত দিন

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

error: Content is protected !!