রাত ২:৩৯ | শুক্রবার | ২৩শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ইউএনওর উপর হামলা : দায় স্বীকার করে রবিউলের জবানবন্দী

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলী শেখের ওপর হামলার ঘটনায় নিজের দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে রবিউল ইসলাম। ২০ সেপ্টেম্বর রবিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির ওসি ইমাম জাফর।

img-add

তিনি বলেন, আসামি রবিউল স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়ে সম্মতি জানায়। তাই সকাল ১০টায় রবিউলকে দিনাজপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে নিয়ে আসা হয়। পরে আবেদনসহ তাকে দিনাজপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ঘোড়াঘাট আমলি আদালত-৭ এ নিয়ে যাওয়া হয়। ঘোড়াঘাট আমলী আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসমাইল হোসেনের কাছে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে সকাল ১০টার দিকে রবিউলকে কড়া নিরাপত্তা নিয়ে দিনাজপুর আদালতে তোলা হয়। প্রায় ৩ ঘণ্টা পর দুপুর ১টার দিকে তিনি বিচারকের সামনে স্বীকারাক্তিমূলক জবানবন্দি শুরু করেন এবং বিচারক তা লিপিবন্ধ করেন।

জানা গেছে, এর আগে গত বৃহস্পতিবার রবিউলকে দ্বিতীয় দফায় ৩ দিনের রিমান্ড শেষে আবার আদালতে তোলা হয়। আদালতে স্বীকারাক্তিমূলক জবাববন্দি করবেন বলে আদালত চত্বরে কঠোর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রবিউল জানিয়েছেন, ওই ঘটনার একমাত্র পরিকল্পনাকারী এবং হামলাকারী সে নিজেই। আক্রোশ থেকেই এই ঘটনা ঘটিয়েছে সে। তার দেয়া তথ্যমতে, হামলায় ব্যবহৃত হাতুড়ি, লাঠি, মই, চাবিসহ বিভিন্ন আলামত উদ্ধার করেছে পুলিশ। একসাথে তার পরনের প্যান্ট, হাতের ছাপসহ মোবাইলের লোকেশন বিষয়গুলো আলামত হিসেবে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এসব আলামত বিচারকার্যে সহায়ক হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে গত ৯ সেপ্টেম্বর সন্দেহভাজন ও প্রযুক্তির মাধ্যমে রবিউলকে নিজ বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজের দোষ স্বীকার করে। গত ১২ তারিখ এ বিষয়টি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য।

তিনি জানিয়েছিলেন, রবিউল দায় স্বীকার করে জানিয়েছে এ ঘটনায় প্রধান পরিকল্পনাকারী এবং একমাত্র হামলাকারী সে নিজে। পরে তাকে ওইদিনেই আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ।

আদালতের বিচারক তাকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ওইদিন থেকেই রিমান্ডে নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে পুলিশ। পরে গত বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে তোলা হয়। ওইদিনই তাকে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে ডিবি পুলিশ। পরে তাকে ৩ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» ঝিনাইগাতীতে কৃষকদের প্রযুক্তি হস্তান্তর প্রশিক্ষণ

» শেরপুরে ছিনতাই-হামলার শিকার আইনজীবী সহকারী

» দ্বিতীয় পরীক্ষাতেও করোনা পজিটিভ হলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো

» চীনের উদ্বেগ বাড়িয়ে তাইওয়ানে অস্ত্র বিক্রির অনুমোদন যুক্তরাষ্ট্রের

» তোফায়েল আহমেদ ৭৮তম জন্মদিন আজ

» ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদানে ঘুষ-দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

» শ্রীবরদীতে যুবকের লাশ উদ্ধার

» শেরপুরে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করলেন বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান

» শেরপুরে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগ খাদ্যসামগ্রী ও বস্ত্র বিতরণ

» শারদীয় দুর্গা পূজায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার তাগিদ দিলেন মতিয়া চৌধুরী

» করোনামুক্ত হয়ে শেরপুরে ফেরায় হুইপ আতিককে প্রেসক্লাবের ফুলেল শুভেচ্ছা

» শেরপুরে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস পালিত

» মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রেস কাউন্সিলের উদ্যোগে শেরপুর প্রেসক্লাবে বই প্রদান

» শেরপুরে কমিউনিস্ট পার্টির প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন

» জামালপুরে একদিনে কলেজছাত্রীসহ ৩ জনের লাশ উদ্ধার

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  রাত ২:৩৯ | শুক্রবার | ২৩শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ইউএনওর উপর হামলা : দায় স্বীকার করে রবিউলের জবানবন্দী

শ্যামলবাংলা ডেস্ক : ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলী শেখের ওপর হামলার ঘটনায় নিজের দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে রবিউল ইসলাম। ২০ সেপ্টেম্বর রবিবার বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবির ওসি ইমাম জাফর।

img-add

তিনি বলেন, আসামি রবিউল স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়ে সম্মতি জানায়। তাই সকাল ১০টায় রবিউলকে দিনাজপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে নিয়ে আসা হয়। পরে আবেদনসহ তাকে দিনাজপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ঘোড়াঘাট আমলি আদালত-৭ এ নিয়ে যাওয়া হয়। ঘোড়াঘাট আমলী আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইসমাইল হোসেনের কাছে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। পরে তাকে জেলা কারাগারে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে সকাল ১০টার দিকে রবিউলকে কড়া নিরাপত্তা নিয়ে দিনাজপুর আদালতে তোলা হয়। প্রায় ৩ ঘণ্টা পর দুপুর ১টার দিকে তিনি বিচারকের সামনে স্বীকারাক্তিমূলক জবানবন্দি শুরু করেন এবং বিচারক তা লিপিবন্ধ করেন।

জানা গেছে, এর আগে গত বৃহস্পতিবার রবিউলকে দ্বিতীয় দফায় ৩ দিনের রিমান্ড শেষে আবার আদালতে তোলা হয়। আদালতে স্বীকারাক্তিমূলক জবাববন্দি করবেন বলে আদালত চত্বরে কঠোর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে রবিউল জানিয়েছেন, ওই ঘটনার একমাত্র পরিকল্পনাকারী এবং হামলাকারী সে নিজেই। আক্রোশ থেকেই এই ঘটনা ঘটিয়েছে সে। তার দেয়া তথ্যমতে, হামলায় ব্যবহৃত হাতুড়ি, লাঠি, মই, চাবিসহ বিভিন্ন আলামত উদ্ধার করেছে পুলিশ। একসাথে তার পরনের প্যান্ট, হাতের ছাপসহ মোবাইলের লোকেশন বিষয়গুলো আলামত হিসেবে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এসব আলামত বিচারকার্যে সহায়ক হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে গত ৯ সেপ্টেম্বর সন্দেহভাজন ও প্রযুক্তির মাধ্যমে রবিউলকে নিজ বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে নিজের দোষ স্বীকার করে। গত ১২ তারিখ এ বিষয়টি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন পুলিশের রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য।

তিনি জানিয়েছিলেন, রবিউল দায় স্বীকার করে জানিয়েছে এ ঘটনায় প্রধান পরিকল্পনাকারী এবং একমাত্র হামলাকারী সে নিজে। পরে তাকে ওইদিনেই আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ।

আদালতের বিচারক তাকে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৬ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ওইদিন থেকেই রিমান্ডে নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে পুলিশ। পরে গত বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে তোলা হয়। ওইদিনই তাকে ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে ডিবি পুলিশ। পরে তাকে ৩ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!