রাত ৮:২৪ | সোমবার | ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আল্লাহর মাগফিরাত পেতে যা বর্জন করতে হবে

মুহাম্মাদ আইয়ুব : আমরা বড়দের মন পেতে যেভাবে তাদের কথামতো চলি, তাদের পছন্দনীয় কাজ বেশি বেশি করি এবং তাদের অপছন্দনীয় কাজ থেকে দূরে থাকি; ঠিক তেমনই আল্লাহর রহমত পেতে তার পছন্দের কাজ করতে হয় এবং তার মাগফিরাতের জন্য বর্জন করতে হয় তারই অপছন্দের কাজ। অপরাধ চালিয়ে যাব আর বলব মুসলমান আমরা। আল্লাহ আমাদের ক্ষমা করবেন না তো কাদের করবেন? এমনটি ভেবে নিশ্চিত হয়ে বসে থাকার কোনো সুযোগ নেই। মাগফিরাতের দিনগুলোতে দয়াময় মালিকের ক্ষমা পেতে হলে অবশ্যই তার অপছন্দনীয় কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে। পবিত্র কোরআনুল কারিমে আল্লাহতায়ালা একাধিকবার বলেছেন যে, তিনি জুলুম পছন্দ করেন না। তিনি কারও ওপর জুলুম করেন না। তা হলে তিনি জুলুম করা কীভাবে পছন্দ করবেন? প্রশ্নই ওঠে না। সুতরাং আমি আপনি আল্লাহর অপছন্দনীয় কাজ করে কোন আশায় তার মাগফিরাত কামনা করি!

img-add

কাউকে অন্যায়ভাবে মারা, জোর জবরদস্তি করা, কারও জায়গাজমি জবরদখল করার নাম-ই কি শুধু জুলুম? না। আরবিতে জুলুমের একটি বহুল প্রচলিত প্রবাদ আছে– ‘কোনো বস্তুকে তার যথোপযুক্ত স্থানে না রেখে অপাত্রে রাখাই জুলুম’। ক্ষমতাবান যদি তার ক্ষমতার সঠিক প্রয়োগ না করে, তা হলে সে জালিম। শিক্ষক যদি তার শিক্ষার সঠিক ব্যবহার না করে, তা হলে সে শিক্ষক জুলুমবাজ। যে আলেম তার ইলমকে সঠিক স্থানে প্রয়োগ না করে, সে অত্যাচারী। যে স্বামী তার স্ত্রীর হক্ব আদায় করে না, সে জালিম স্বামী। যে সন্তান তার পিতামাতার হক্ব আদায় করে না বা যে পিতামাতা তার সন্তানের হক্ব আদায় করে না তারাও জালিম।

যে ব্যবসায়ী তার ক্রেতাকে ঠকায়, সে ব্যবসায়ীও জুলুমের দোষে দোষী। যে বিচারক সঠিক বিচার করে না, সেও জালিম। যে ডাক্তার তার রোগীর সঠিক চিকিৎসা করে না, সেও এ কাতারের লোক। এভাবে আপনি গোটা সমাজকে সামনে আনুন। ব্যস ক্যালকুলেশন হয়ে যাবে আমরা কারা জালিম আর কারা জালিম না। যদি সমাজ, দেশ জুলুমবাজে ভরা থাকে, তা হলে বলুন আল্লাহর রহমতের আশা কীভাবে করি! তার পরও আল্লাহ তো আল্লাহ। হাজার দোষে দোষী তাতে কী, মালিকের কাছে খাটি অন্তরে দুই ফোঁটা অশ্রু বিসর্জন দিয়ে তওবা করলেই তিনি মাফ করে দেন। আবার কান্নার সময়টা যদি হয় রমজানের মাগফিরাতের দিবানিশি তা হলে তো কথাই নেই। সুতরাং আমরা যে যেই স্তরের জালিম, সেই স্তর থেকে সত্য দিলে তওবা করে ফিরে আসি। আশা করা যায় মাফ পেয়ে যাব। অন্যথায় আমার-আপনার জুলুম কিন্তু আল্লাহর মাগফিরাত আটকে দেয়ার জন্য যথেষ্ট।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» শ্রীবরদীতে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত

» দেশে করোনায় আরও ৩২ জনের মৃত্যু

» শেরপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» শ্রীবরদীতে নির্যাতিত গৃহকর্মীর পাশে উপজেলা প্রশাসন

» নকলায় আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উদযাপন উপলক্ষে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা

» প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন আজ

» ৪ গোলের মালা পরিয়ে বার্সায় শুরু কোমানের

» শেরপুরে শৌচাগারে ধর্ষকদের ছবি লাগিয়ে ছাত্রলীগের প্রতিবাদ

» শেরপুরে পুঁথিকাব্য ‘ডাইনি মা’ ও যৌথ কাব্য গ্রন্থ ‘অগ্নিশিখা’র শুভ প্রকাশ

» শ্রীবরদীতে বাবার সাথে অভিমান করে যুবকের আত্মহত্যা

» মাহবুবে আলমের অবদান জাতি শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে: প্রধানমন্ত্রী

» অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম মারা গেছেন

» প্রতিবেশীদের সঙ্গে সহযোগিতায় জোর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার

» নকলায় যুবলীগ নেতা ইসরাফিল হোসেনের ইন্তেকাল

» সিলেটের ঘটনায় কাউকে ছাড় দেয়া হবে না: ওবায়দুল কাদের

সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

  রাত ৮:২৪ | সোমবার | ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আল্লাহর মাগফিরাত পেতে যা বর্জন করতে হবে

মুহাম্মাদ আইয়ুব : আমরা বড়দের মন পেতে যেভাবে তাদের কথামতো চলি, তাদের পছন্দনীয় কাজ বেশি বেশি করি এবং তাদের অপছন্দনীয় কাজ থেকে দূরে থাকি; ঠিক তেমনই আল্লাহর রহমত পেতে তার পছন্দের কাজ করতে হয় এবং তার মাগফিরাতের জন্য বর্জন করতে হয় তারই অপছন্দের কাজ। অপরাধ চালিয়ে যাব আর বলব মুসলমান আমরা। আল্লাহ আমাদের ক্ষমা করবেন না তো কাদের করবেন? এমনটি ভেবে নিশ্চিত হয়ে বসে থাকার কোনো সুযোগ নেই। মাগফিরাতের দিনগুলোতে দয়াময় মালিকের ক্ষমা পেতে হলে অবশ্যই তার অপছন্দনীয় কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে। পবিত্র কোরআনুল কারিমে আল্লাহতায়ালা একাধিকবার বলেছেন যে, তিনি জুলুম পছন্দ করেন না। তিনি কারও ওপর জুলুম করেন না। তা হলে তিনি জুলুম করা কীভাবে পছন্দ করবেন? প্রশ্নই ওঠে না। সুতরাং আমি আপনি আল্লাহর অপছন্দনীয় কাজ করে কোন আশায় তার মাগফিরাত কামনা করি!

img-add

কাউকে অন্যায়ভাবে মারা, জোর জবরদস্তি করা, কারও জায়গাজমি জবরদখল করার নাম-ই কি শুধু জুলুম? না। আরবিতে জুলুমের একটি বহুল প্রচলিত প্রবাদ আছে– ‘কোনো বস্তুকে তার যথোপযুক্ত স্থানে না রেখে অপাত্রে রাখাই জুলুম’। ক্ষমতাবান যদি তার ক্ষমতার সঠিক প্রয়োগ না করে, তা হলে সে জালিম। শিক্ষক যদি তার শিক্ষার সঠিক ব্যবহার না করে, তা হলে সে শিক্ষক জুলুমবাজ। যে আলেম তার ইলমকে সঠিক স্থানে প্রয়োগ না করে, সে অত্যাচারী। যে স্বামী তার স্ত্রীর হক্ব আদায় করে না, সে জালিম স্বামী। যে সন্তান তার পিতামাতার হক্ব আদায় করে না বা যে পিতামাতা তার সন্তানের হক্ব আদায় করে না তারাও জালিম।

যে ব্যবসায়ী তার ক্রেতাকে ঠকায়, সে ব্যবসায়ীও জুলুমের দোষে দোষী। যে বিচারক সঠিক বিচার করে না, সেও জালিম। যে ডাক্তার তার রোগীর সঠিক চিকিৎসা করে না, সেও এ কাতারের লোক। এভাবে আপনি গোটা সমাজকে সামনে আনুন। ব্যস ক্যালকুলেশন হয়ে যাবে আমরা কারা জালিম আর কারা জালিম না। যদি সমাজ, দেশ জুলুমবাজে ভরা থাকে, তা হলে বলুন আল্লাহর রহমতের আশা কীভাবে করি! তার পরও আল্লাহ তো আল্লাহ। হাজার দোষে দোষী তাতে কী, মালিকের কাছে খাটি অন্তরে দুই ফোঁটা অশ্রু বিসর্জন দিয়ে তওবা করলেই তিনি মাফ করে দেন। আবার কান্নার সময়টা যদি হয় রমজানের মাগফিরাতের দিবানিশি তা হলে তো কথাই নেই। সুতরাং আমরা যে যেই স্তরের জালিম, সেই স্তর থেকে সত্য দিলে তওবা করে ফিরে আসি। আশা করা যায় মাফ পেয়ে যাব। অন্যথায় আমার-আপনার জুলুম কিন্তু আল্লাহর মাগফিরাত আটকে দেয়ার জন্য যথেষ্ট।

Print Friendly, PDF & Email
এ সংক্রান্ত আরও খবর

সর্বশেষ খবর



অন্যান্য খবর



সম্পাদক-প্রকাশক : রফিকুল ইসলাম আধার
উপদেষ্টা সম্পাদক : সোলায়মান খাঁন মজনু
নির্বাহী সম্পাদক : মোহাম্মদ জুবায়ের রহমান
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১ : ফারহানা পারভীন মুন্নী
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : আলমগীর কিবরিয়া কামরুল
বার্তা সম্পাদক-১ : রেজাউল করিম বকুল
বার্তা সম্পাদক-২ : মোঃ ফরিদুজ্জামান।
যোগাযোগ : সম্পাদক : ০১৭২০০৭৯৪০৯
নির্বাহী সম্পাদক : ০১৯১২০৪৯৯৪৬
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-১: ০১৭১৬৪৬২২৫৫
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-২ : ০১৭১৪২৬১৩৫০
বার্তা সম্পাদক-১ : ০১৭১৩৫৬৪২২৫
বার্তা সম্পাদক -২ : ০১৯২১-৯৫৫৯০৬
বিজ্ঞাপন : ০১৭১২৮৫৩৩০৩
ইমেইল : shamolbangla2013@gmail.com.

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । ওয়েবসাইট তৈরি করেছে- BD iT Zone

error: Content is protected !!