প্রকাশকাল: 10 সেপ্টেম্বর, 2019

শেরপুরে সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়ে জেলা পুলিশের সম্পৃক্তকরণ সভা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ শেরপুরে সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয়ে গুণীজন, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকদের অংশগ্রহণ নিয়ে জেলা পুলিশের সম্পৃক্তকরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে শহরের অষ্টমীতলাস্থ জেলা পুলিশ লাইন্সে আয়োজিত ওই সভায় সভাপতিত্ব করেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুল আজীম পিপিএম। সভায় রোহিঙ্গা ও নাগরিক সনদ, মাদক, জঙ্গিবাদ, ইভটিজিং, গুজব, জুয়া, নারী নির্যাতন, গ্যাং কালচার, ট্রফিক সচেতনতা, গ্রেফতারি পরোয়নাভূক্তদের, বহিরাগত ও ভাড়াটিয়াদের তথ্য প্রদান বিষয়ে দীর্ঘ আলোচনা হয়। ওইসময় তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা বিভিন্ন কৌশলে জন্মনিবন্ধন সংগ্রহ করে জাতীয় পরিচয়পত্র এবং পাসপোর্ট তৈরী করে আমাদের দেশের নাগরিক বনে যাচ্ছে। এটা খুবই ভয়ংকর। এদিকে, শেরপুর সীমান্তের নিকটবর্তী ভারতের আসামে নাগরিকপঞ্জি তৈরীর কারণে অনেকেই সেখানে নাগরিক তালিকা থেকে বাদ পড়েছে। এনআরসি থেকে বাদপড়া কেউ যেন আমাদের দেশে অনুপ্রবেশ করতে না পারে, আমাদের দেশের নাগরিক বনে না যায়, সে বিষয়ে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। মাদক যুব সমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। উঠতি বয়সের ছেলেরা গ্যাং কালচারে লিপ্ত হচ্ছে। এলাকায় এলাকায় নানা ধরনের গুজব ছড়িয়ে একটি গোষ্ঠি জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। জঙ্গিরা পরিচয় গোপন করে নানা স্থানে বাসা-বাড়ী ভাড়া নিয়ে কিংবা বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান করে নাশকতা সৃষ্টির পরিকল্পনা করছে। নারী নির্যাতনের অনেক ঘটনা এখন উঠে আসছে। এসব বিষয়ে সবাইকে সচেতন হতে হবে। এজন্য জননিবন্ধন সনদ প্রদানে জনপ্রতিনিধিদের আরো কড়াকড়ি করতে হবে। কাউকে না দেখে তার জন্মনিবন্ধন করা যাবে না। কোনভাবেই যেন রোহিঙ্গারা জন্ম নিবন্ধন সনদ না পায়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। এলাকায় অপরিচিত কাউকে দেখলে পুলিশকে সংবাদ দিতে হবে। তিনি মাদকাসক্তদের চিহ্নিত করে তাদের পুলিশে সোপর্দ করার জন্য উপস্থিত জনপ্রতিনিধিসহ সকলের সহযোগিতা কমনা করেন। সভায় কয়েকজন জনপ্রতিনিধি মাদক নির্মূলে পুলিশকে সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা এবং বাল্যবিয়ে বন্ধে কাজীদের প্রতি আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান জানান। মোবাইলের মাধ্যমে লুডু জুয়াসহ নানা ধরনের জুয়া খেলা, আইপিএল জুয়া বন্ধ করা, এবং সীমান্তে মাদক ও অবৈধ অনুপ্রবেশ বন্ধে গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোর জন্য পুলিশ সুপারের প্রতি আহ্বান জানান সুধীবৃন্দরা।
সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নকলা পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন, নালিতাবাড়ী পৌর মেয়র আবু বক্কর সিদ্দিক বাক্কার, শ্রীবরদী পৌর মেয়র আবু সাইদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা ইউনিটের সাবেক কমান্ডার নুরুল ইসলাম হিরু, জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হারুনুর রশিদ, জেলা মহিলা পরিষদের সভানেত্রী জয়শ্রী দাস লক্ষ্মী, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মেরাজ উদ্দিন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাবিহা জামান শাপলা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আদিল মাহমুদ উজ্জল, পাকুড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হায়দার আলী, বেতমারী-ঘুঘুরাকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ, কাকরকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম মুকুল তালুকদার, রাজনগর ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ বকুল, বানের্শ্বদী ইউপি চেয়ারম্যান মাজহারুল আনোয়ার মহব্বত, রাণীশিমুল ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ রানা, ঝিনাইগাতী সদর ইউপি চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন চাঁন, সাংবাদিক তালাপতুফ হোসেন মঞ্জু, সঞ্জীব চন্দ বিল্টু, তালাত মাহমুদ, আদিবাসী নেত্রী রবেতা ম্রং প্রমুখ। সভায় বক্তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত এবং সুখী সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলা গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন, শেরপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র আতিউর রহমান মিতুল, প্রেসক্লাব সভাপতি শরিফুর রহমান, ডিআইও-১ মোহাম্মদ আবুল বাশার, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন, শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ রুহুল আমিন তালুকদার, নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন শাহ, ঝিনাইগাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বক্কর সিদ্দিক, ডিবির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান, নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সারওয়ার জাহানসহ ৫২ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, পৌর মেয়রগণ, সুধীমহল ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠান শেষে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ আমাদের অঙ্গীকার’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে শেরপুর জেলা পুলিশের ই-জিপি’র উদ্বোধন ঘোষণা করেন পুলিশ সুপার কাজী আশরাফুুল আজীম পিপিএম।

আপনার মতামত দিন

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

error: Content is protected !!